বুধবার  ০৫ অক্টোবর ২০২২,   আশ্বিন ১৯ ১৪২৯,  ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

বিভিন্ন ধরনের বালা-মুসিবত দূর করার আমল

প্রকাশিত: ২১:০০, ১০ আগস্ট ২০২২

বিভিন্ন ধরনের বালা-মুসিবত দূর করার আমল

বিভিন্ন ধরনের বালা-মুসিবত দূর করার আমল

মানুষ নানা ধরনের বালা-মুসিবত বা বিপদ-আপদ পড়তে পারে। ধেয়ে আসতে পারে বেদনাদায়ক কোনো কষ্ট। হতে পারে তা জীবন তছনছ করে দিতে পারে। তাই বালা-মুসিবত বা বিপদ-আপদ এসে গেলে তা থেকে বাঁচতে আল্লাহর সাহায্য চাইতে হবে। এখানে একটি চমৎকার দোয়া উল্লেখ করা হলো। দোয়াটি হলো-

আরবি: لَا إِلَهَ إِلَّا أَنْتَ سُبْحَانَكَ إِنِّي كُنْتُ مِنَ الظَّالِمِينَ

উচ্চারণ: লা ইলাহা ইল্লা আন্তা সুবহানাকা ইন্নি কুনতু মিনাজ্ জালিমীন।

অর্থ: আপনি ব্যতীত আর কোনো উপাস্য নেই। আমি আপনার পবিত্রতা ঘোষণা করছি। অবশ্যই আমি পাপী। (সুরা আল আম্বিয়া, আয়াত : ৮৭)

দোয়া ইউনুস পড়ার ফজিলত

এ আয়াতে আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেছেন, আমি নবী ইউনুসের প্রার্থনা মঞ্জুর করেছি। তাকে দুঃখ থেকে মুক্তি দিয়েছি।

অনুরূপভাবে যে মুমিনরা এ দোয়া পড়বে আমি তাদেরও বিভিন্ন বালা-মুসিবত থেকে মুক্তি দিব। (সুরা আল আম্বিয়া, আয়াত: ৮৮)

নবী করিম (সা.) ইরশাদ করেছেন, যে ব্যক্তি হজরত ইউনুস (আ.)-এর ভাষায় দোয়া করবে, সে যে সমস্যায়ই থাকুক আল্লাহ তায়ালা তার ডাকে সাড়া দিবেন। (তিরমিজি, হাদিস : ৩৫০৫)

রাসুল (সা.) আরো ইরশাদ করেছেন, আমার ভাই ইউনুসের দোয়াটি খুব সুন্দর। এর প্রথম অংশে আছে কালিমায়ে তায়্যিবা। মাঝের অংশে আছে তাসবিহ। আর শেষের অংশে আছে অপরাধের স্বীকারোক্তি। যেকোনো চিন্তিত, দু:খিত, বিপদগ্রস্থ ব্যক্তি প্রতি দিন এ দোয়া তিন বার পাঠ করবে আল্লাহ তায়ালা তার ডাকে সাড়া দিবেন। (কানজুল উম্মাল, হাদিস: ৩৪২৮)