বৃহস্পতিবার  ১১ আগস্ট ২০২২,   শ্রাবণ ২৬ ১৪২৯,  ১৩ মুহররম ১৪৪৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

শ্রীপুরের সেই ৩৫০ বিঘা জমিতে পানি ফেলা বন্ধের নির্দেশ

প্রকাশিত: ০৬:১৭, ২১ মার্চ ২০১৯

শ্রীপুরের সেই ৩৫০ বিঘা জমিতে পানি ফেলা বন্ধের নির্দেশ

গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভার কেওয়া পূর্ব খন্ড এলাকায় ৩৫০ বিঘা আবাদি জমিতে সি আর সি টেক্সটাইল, নিক্কি থাই এলুমিনিয়াম ইন্ডাস্ট্রি লিঃ ও সি জি গার্মেন্টস নামক কারখানা থেকে দূষিত পানি ফেলছিল কারখানা গুলোর কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার বিকেলে পরিবেশ অধিদপ্তর গাজীপুর’ কর্তৃক কৃষকদের জমিতে কারখানাগুলোর কর্তৃপক্ষ কে পানি ফেলা বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে।

গত ১১ ফেব্রুয়ারি শ্রীপুর পৌরসভার মেয়র ও গাজীপুর-৩ আসনের এমপি ইকবাল হোসেন সবুজ বরাবর ১৮২ জন কৃষক স্বাক্ষরিত একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল এবং গত ১০ মার্চ পরিবেশ অধিদপ্তর গাজীপুর অফিসে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের পক্ষ থেকে অভিযোগ দাখিল করলে নিক্কি থাই এলুমিনিয়াম থেকে পানি ফেলা বন্ধ করেছে কারখানা কর্তৃপক্ষ।

সি আর সি টেক্সটাইল কর্তৃপক্ষকে পানি ফেলা বন্ধ করার কথা বলেছেন পরিবেশ অধিদপ্তরের গাজীপুর পরিদর্শক শেখ মোজাহীদ। কৃষকদের পক্ষ থেকে আনিছুর রহমান ও হাজ্বী মনিরুজ্জামান জানান, আমাদের এই কেওয়া বাইদে ৩৫০ বিঘা জমিতে গত ১০ বছর যাবৎ কোনও প্রকার কৃষিকাজ করতে পারছি না। এতে আমরা ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছি। আমরা কৃষকগণ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেছি। এখন চাপে পড়ে শুধু পানি ফেলা বন্ধ করলেই আমাদের বিপদ কেটে যাবে না। আমরা সঠিক তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের আইনের আওতায় আনার পাশাপাশি আমাদের ক্ষতিপূরণ দাবী করছি। এ ব্যাপারে পরিবেশ অধিদপ্তরের গাজীপুর জেলা পরিদর্শক শেখ মোজাহীদ বলেন, নিক্কি থাই এলুমিনিয়াম ইন্ডাস্ট্রি লিঃ এর নিজস্ব বর্জ্য শোধনাগার রয়েছে। তাদের কোনও পানি বাহিরে ফেলছে না । সি আর সি টেক্সটাইল’র ডায়িং নেই, পানিতে বিষাক্ত ক্যামিক্যাল নেই, কারখানার রান্নাবান্না ও গোসলের পানি বাহিরে ফেলছে, তবুও বাহিরে পানি ফেলা নিষেধ করা হয়েছে। তবুও পানি ফেললে ৪/৫ দিন পরে কারখানা কর্তৃপক্ষ ও কৃষকদের গাজীপুর অফিসে আসতে বলা হয়েছে।

গাজীপুর কথা