সোমবার  ০৫ ডিসেম্বর ২০২২,   অগ্রাহায়ণ ২১ ১৪২৯,  ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

শিশুসন্তানকে আদর করতে করতে মৃত্যুর কোলে মা

প্রকাশিত: ২১:৫৯, ২২ নভেম্বর ২০২২

শিশুসন্তানকে আদর করতে করতে মৃত্যুর কোলে মা

পূবাইল মেট্রোপলিটন থানা

গাজীপুর মহানগরীর পূবাইল মেট্রোপলিটন থানার হায়দরাবাদ এলাকায় ৪ বছরের শিশু ছেলে আপনকে আদর করতে করতেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন মা লাকী আক্তার (২২)।

সোমবার দুপুরে পূবাইলের ৩৯নং ওয়ার্ডের হায়দরাবাদ জিরাইতলী এলাকায় এ মর্মান্তিক হৃদয়বিদারক ঘটনাটি ঘটেছে।

ওই সময় লাকীর সাবেক স্বামী একই এলাকার ওমর আলীর ছেলে আলালসহ বাড়ির কেউই বাড়িতে ছিলেন না।

লাকী আক্তার কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর থানার পাহাড়পুর গ্রামের মোস্তফা কামালের মেয়ে।

মেয়েটির বাবা মোস্তফা কামাল তার জামাতার ওপর অভিযোগ তুলে বলছেন তার মেয়েকে খুন করা হয়েছে। স্বামী আলালের বাড়ির লোকজন বলছেন ইঁদুর মারা ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যা করেছে।

ঘটনাস্থলে গিয়ে জানা যায়, প্রায় ৫ বছর আগে প্রেমের সম্পর্কে কুমিল্লার মেয়ে লাকী আক্তার ও পূবাইলের জিরাইতলী এলাকার আলালের বিয়ে হয়। বিয়ের এক বছরের মধ্যেই ফুটফুটে শিশু আপনের জন্ম হয়।

কিন্তু বিয়ের ২-৩ বছর পর থেকেই স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া বিবাদ লেগেই থাকত। গত ৪ মাস আগে উভয় পরিবারের সম্মতিতে লাকী ও আলালের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। ৪ বছরের শিশু আপনকে রেখে দেয় তার বাবা আলাল। শিশু আপনের মায়ায় মা লাকী আক্তারের মন ছটফট করায় প্রাক্তন স্বামী আলালের বাড়ির পাশেই জালাল, মোতালেবসহ ৪-৫টি বাড়িতে ঝিয়ের কাজ নেয় লাকী।

প্রতিদিন একনজর দেখে ছেলে আপনকে কোলে নিয়ে একটু আদর করে আসত। প্রতিদিনের মতো সোমবার দুপুরে আদর করতে করতেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি। প্রতিবেশীরা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

প্রত্যক্ষদর্শী মোহাম্মদ আলী ইটালি জানান, মেয়েটি তার পূর্বের স্বামী আলালের সঙ্গে পুনরায় সংসার করতে চেয়েছিলেন। মেয়েটিকে এক সপ্তাহ অপেক্ষা করতে বলেছিলাম- তাদের দুইজনের মধ্যে একটা মিলমিশ করে দেব বলে। সে শুনল না। তবে মেয়েটি খুবই রাগী ছিল।

পূবাইল থানার ওসি মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে নেওয়া রয়েছে। অপমৃত্যু মামলার প্রস্তুতি চলছে।