• সোমবার   ২৪ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ১১ ১৪২৮

  • || ২০ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

গাজীপুর কথা

বারি সরিষা ১৪ ও ১৭ জাতের উৎপাদন ও প্রযুক্তি শীর্ষক মাঠ দিবস

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারি ২০২২  

আমি একজন কৃষক, কৃষি কাজ করেই আমি আমার সংসার চালাই। আমন ধান ঘরে তোলার পরে দীর্ঘ কয়েক মাস জমি পতিত থাকে। আমরা কৃষক জমি পতিত ফেলে রাখলে আমাদের অনেক ক্ষতি। তাই বিগত দুই বছর যাবত আমন ঘরে তোলার পর জমি পতিত ফেলে রাখি নাই। জমিতে বারি-১৪ ও১৭ জাতের সরিষা লাগিয়েছি। বারি সরিষা জাতের উৎপাদন ও প্রযুক্তি শীর্ষক মাঠ দিবসের আলোচনায় কথাগুলো বলছিলো নেত্রকোনা সদরের চল্লিশা কারলি এলাকার কৃষক নূরে আলম সিদ্দিকী।
তিনি আরো বলেন, গত বছর ১০ কাঠা জমিতে বারি সরিষা ১৪ ও ১৭ জাতের চাষ করেছিলাম। এতে অনেক লাভ হয়েছে। এই বছর ৫০ কাঠা জমিতে সরিষা আবাদ করেছি। এতে মোট খরচ হয়েছে ২৫ হাজার। আশা করছি সকল খরচ বাদে এবার এক লক্ষ টাকার অধিক লাভ হবে।
সরিষা চাষে আমার সাফল্য দেখে এলাকার অনেক কৃষকই এবার তাদের জমিতে বারি-১৪ ও১৭ জাতের সরিষা লাগিয়েছে।
বুধবার (১২জানুয়ারী) দুপুরে নেত্রকোনার কারলি চল্লিশা এলাকায় বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এর সরেজমিন গবেষনা বিভাগ ময়মনসিংহের আয়োজনে ও গাজীপুর তেলবীজ গবেষনা কেন্দ্রের বাস্তবায়নে তেলবীজ ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্পের আওতায় বারি সরিষা ১৪ ও ১৭জাতের উৎপাদন ও প্রযুক্তি বিষয়ক অনুষ্ঠিত মাঠ দিবসে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ সরেজমিন গবেষণা কেন্দ্রের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড.মোঃ মনিরুজ্জামান।
এসময় আরো বিশেষ অতিথি হিসেবে কৃষকদের দিক নির্দেশনামূলক বিভিন্ন বক্তব্য রাখেন গাজীপুর তেলবীজ গবেষণা কেন্দ্রের উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. শেখ হাসনা হাবিব, ময়মনসিংহ সরেজমি গবেষণা কেন্দ্রের উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোঃ এমরাউল ইসলাম, তেলবীজ গবেষণা কেন্দ্রের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা প্রিয়াংকা রায়। মাঠ দিবসে এলাকার প্রায় শতাধিক কৃষক উপস্থিত ছিলেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড.মোঃ মনিরুজ্জামান বলেন, সরিষার তেল অধিক পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবার। তেল খাবারের স্বাদ ও পুষ্টিমান বাড়িয়ে দেয়। আমাদের দেশে চাহিদানুযায়ী তেলের উৎপাদন না থাকায় বিদেশ থেকে আমদানীকৃত তেলের ভিড়ে পরিবেশ বান্ধব সরিষার চাষ অনেকটাই হ্রাস পেয়েছে।
তাই বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনষ্টিটিউটের বৈজ্ঞানীরা স্বল্প জীবনকাল বিশিষ্ট উচ্চ ফলনশীল এবং রোগবালাই প্রতিরোধী বারি সরিষা-১৪ ও ১৭ উদ্ভাবন করে দেশের জনগনের তেলের চাহিদা পূরণে এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। বারি সরিষা-১৭ এ জাতটি খুবই স্বল্পমেয়াদী একটি আধুনিক জাত যার জীবনকাল ৮০-৮৫ দিন, গড় ফলন বিঘাপ্রতি ৫.৫০-৬.০ মন। ফলে কৃষক অনেক লাভবান হয়।
ফলে আমদানীকৃত তেলের উপর নির্ভর না হয়ে নিজ নিজ এলাকায় সরিষার চাষ করে খাঁটি তেল খাওয়ার অভ্যাস সৃষ্টি সৃষ্টি করতে কৃষকদের আহবান জানান তিনি।

গাজীপুর কথা
গাজীপুর কথা