রোববার ০১ অক্টোবর ২০২৩,   আশ্বিন ১৫ ১৪৩০,  ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

না জানিয়ে বাবার পকেট থেকে নেওয়া টাকা কি ফেরত দিতে হবে?

প্রকাশিত: ১৬:৫৪, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩

না জানিয়ে বাবার পকেট থেকে নেওয়া টাকা কি ফেরত দিতে হবে?

না জানিয়ে বাবার পকেট থেকে নেওয়া টাকা কি ফেরত দিতে হবে?

বাবাকে না জানিয়ে তার পকেট বা মানিব্যাগ বা অন্য কোনো উৎস থেকে টাকা নেওয়া সন্তানের জন্য বৈধ নয়। তবে যে সন্তানদের ভরণপোষণের খরচ দেওয়া বাবার ওপর ওয়াজিব (যেমন মেয়ে যদি বাবার অভিভাবকত্বে থাকে বা ছেলে যদি অপ্রাপ্তবয়স্ক হয়) বাবা যদি তাদের অত্যাবশ্যকীয় খরচ ঠিক মতো না দেন, তাহলে তারা প্রয়োজন পরিমাণ টাকা নিতে পারে তাকে না জানিয়ে।

হাদিসে এসেছে- আয়েশা (রা.) বলেন, হিন্দা বিনতে উতবা (রা.) নবীজিকে (সা.) বলেন, আবু সুফিয়ান খুবই কৃপণ। আমার ও আমার সন্তানের যতটুকু প্রয়োজন ততটুকু সে দেয় না। আমি তাকে না জানিয়ে প্রয়োজন পরিমাণ অর্থ তার কাছ থেকে নিয়ে নেই। রাসূল (সা.) বললেন, নিজের জন্য ও সন্তানের জন্য যতটুকু প্রয়োজন ততটুকু নিতে পারেন। (সহিহ বুখারি: ৫৩৬৪, সহিহ মুসলিম ১৭১৪)

প্রাপ্তবয়স্ক ছেলেদের জন্য বাবার পকেট থেকে টাকা সরানো হারাম। কারণ তাদের ভরণপোষণের খরচ দেওয়া বাবার ওপর ওয়াজিব নয়। বাবার অভিভাবকত্বে থাকা মেয়েরা যদি অত্যাবশ্যকীয় প্রয়োজনের বাইরে টাকা নেয়, তাও হারাম হবে।

তাই ছেলেরা প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পরে বা মেয়েরা যদি অত্যাবশ্যকীয় প্রয়োজন ছাড়া বাবার পকেট থেকে টাকা সরায়, তাহলে তা ফিরিয়ে দেওয়া ওয়াজিব। সঠিক পরিমাণ না জানা থাকলে প্রবল ধরাণা অনুযায়ী একটি পরিমাণ ঠিক করে তা ফিরিয়ে দিতে হবে।

টাকা সরানোর কথা বাবাকে জানানো আবশ্যক নয়। বরং যে কোনোভাবে ওই পরিমাণ অর্থ তার কাছে পৌঁছালেই হবে। একবারে বা কয়েক বারেও এই অর্থ পরিশোধ করা যেতে পারে।

তবে যদি টাকা সরানোর কথা জানানো সম্ভব হয় এবং তিনি খুশি মনে ওই টাকার দাবি ছেড়ে দেন, তাহলে টাকা ফেরত দিতে হবে না।