ঢাকা,  বুধবার  ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

গাজীপুর-৫ আসনে নিয়াজ উদ্দিনের মনোনয়নপত্র বৈধ

প্রকাশিত: ২৩:১২, ৪ ডিসেম্বর ২০২৩

গাজীপুর-৫ আসনে নিয়াজ উদ্দিনের মনোনয়নপত্র বৈধ

ফাইল ছবি

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের গাজীপুরের ৫টি সংসদীয় আসনের মধ্যে দুটি আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন সাবেক সচিব এম এম নিয়াজ উদ্দিন। মনোনয়নপত্র বাছাইকালে প্রথম দিনে রোববার (৩ ডিসেম্বর) ঋণখেলাপির কারণে রিটার্নিং কর্মকর্তা গাজীপুর-১ আসনে তার মনোনয়ন বাতিল করে দেন। কিন্তু শেষ দিনে সোমবার (৪ ডিসেম্বর) গাজীপুর-৫ আসনে তার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করেছেন।

রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গাজীপুরের ৫টি সংসদীয় আসনে দাখিল করা মনোনয়নপত্র রোববার ও সোমবার বাছাই করা হয়। জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের ভাওয়াল সম্মেলন কক্ষে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক আবুল ফাতে মোহাম্মদ সফিকুল ইসলাম প্রার্থীদের মনোনয়ন বাছাই করেন। এ সময় জেলা পুলিশ সুপার কাজী শফিকুল আলম, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এ এইচ এম কামরুল হাসান, বিভিন্ন ব্যাংক, আর্থিক ও সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, নির্বাচনে অংশ গ্রহণকারী প্রার্থী বা তাদের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

গাজীপুর-১ আসনে জাতীয় পার্টির দুই জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, সাবেক সচিব এম এম নিয়াজ উদ্দীন ও আল আমিন। বাছাইকালে ঋণখেলাপি থাকার কারণে প্রথম দিনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী ও সাবেক সচিব এম এম নিয়াজ উদ্দিনের মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করা হয়। তবে এ আসনে জাতীয় পার্টির অপর প্রার্থী আল আমিনের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়। 

সূত্র আরও জানা যায়, গাজীপুর-৫ আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে সাবেক সচিব এম এম নিয়াজ উদ্দিন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বাছাইয়ের শেষ দিনে সোমবার (৪ ডিসেম্বর) তার প্রার্থিতা বৈধ বলে ঘোষণা করা হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে গাজীপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এ এইচ এম কামরুল হাসান বলেন, বাছাইয়ের প্রথম দিনে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিনিধি ঋণখেলাপির বিষয়ে আপত্তি উত্থাপন করেন। রিটার্নিং কর্মকর্তা সেই আপত্তি আমলে নিয়ে মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন। কিন্তু বাছাইয়ের দ্বিতীয় (শেষ) দিনে বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে কোনো আপত্তি আসেনি। তাই এখানে ঋণখেলাপির বিষয়টি উত্থাপিত না হওয়ায় তার মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে।

এ বিষয়ে এম এম নিয়াজ উদ্দিন বলেন, ‘প্রথম দিনে কেন বাতিল করল আমি বুঝতে পারছি না। আমি আগামীকাল (মঙ্গলবার) আপিল করব।’

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের গাজীপুরের ৫টি সংসদীয় আসনের মধ্যে আওয়ামী লীগ, আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্রসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ৪৪ প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। সোমবার মনোনয়নপত্র বাছাই শেষ হয়েছে। বাছাই শেষে গাজীপুরের ৫ সংসদীয় আসনে মোট ৪১ জনের প্রার্থিতা বৈধ ও ঋণখেলাপির কারণে ২ জনের এবং পৌর কর খেলাপির কারণে ১ জনের প্রার্থিতা বাতিল করা হয়েছে।