শনিবার  ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩,   মাঘ ২১ ১৪২৯,  ১৩ রজব ১৪৪৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

আজেবাজে কারণে টাকা ওড়ায় স্বামী? ৫ কৌশলে শুধরে দিন

প্রকাশিত: ২০:১৭, ২৪ জানুয়ারি ২০২৩

আজেবাজে কারণে টাকা ওড়ায় স্বামী? ৫ কৌশলে শুধরে দিন

প্রতীকী ছবি

সব মানুষের জীবন-যাপনেইর টাকা প্রয়োজন। অনেকে অহেতুক টাকা খরচ করেন। আপনার স্বামীও কি এই লাইনেই মানুষ? উত্তর হ্যাঁ হলে, সাবধান খুঁজুন। কারণ এই অভ্যাস কিন্তু সংসারের জন্য অমঙ্গল ডেকে আনে। তাই পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হবে। তবেই ভালো থাকতে পারবেন।

কারণ খুঁজুন: আপনি কারণ খুঁজে নিন এই সমস্যার। তিনি কোথায় যাচ্ছেন, কাদের সঙ্গে মিশছেন ইত্যাদি বিষয়ে নজর রাখতে হবে। তবেই আপনি এই সমস্যার সমাধান করতে পারবেন। দেখুন তিনি নেশা করছেন কিনা, বন্ধুদের সঙ্গে কোথাও গিয়ে অহেতুক পয়সা খরচ করছেন কিনা! কী চলছে পুরোটা জানতে হবে। এরপরই কোনও ব্যবস্থা আপনি নিতে পারবেন। নইলে সমস্যা মেটাতে পারবেন না। রোগ না ধরলে ওষুধ কী দেবেন!

তাকে সরাসরি বলুন: তাকে অবশ্যই আপনার সমস্যার কথা বলুন। এভাবে টাকা ওড়ানো যে ঠিক নয়, সংসারে সমস্যা হচ্ছে তা বলতে হবে। তবে ঝগড়ার মেজাজে বললে হবে না। বরং শান্ত মাথায় তাকে নিয়ে বসুন। সবটা খুলে বলুন। মুখ বুঁজে সব সহ্য করলে এই সমস্যার সমাধান হবে না। তাই আপনাকে অবশ্যই প্রথমে এই কাজটি করতে হবে। তিনি আপনার কথা শুনলেই দেখবেন মিটিয়ে ফেলেছেন সব জটিলতা।

তাকে বাড়িতে থাকতে বলুন: এই কাজটা করতে পারা খুবই কঠিন। তবে নিজের মনের উপর পাথর রেখে কাজটা করে ফেলতে হবে। তাকে বাড়িতে থাকতে বলুন। বাইরে বের হতে দেবেন না বেশি। অফিস থেকে ফিরে তিনি আপনার সঙ্গে সময় কাটালেই দেখবেন সমস্যার সহজ সমাধান আপনি করে ফেলতে পেরেছেন। খরচা করার সুযোগই পাবেন না। তাই তাকে বাড়িতে থাকতে বাধ্য করুন।

ওনার শুভাকাঙ্খীদের জানান: আপনি তার ভালো চান। এছাড়াও কিছু মানুষ নিশ্চয়ই রয়েছেন, যারা স্বামীর মঙ্গল কামনা করেন। এবার থেকে সেই মানুষগুলোকে এই সমস্যার কথা বলুন। বুঝতে পারছি আপনার বলতে ভালো লাগবে না। তবুও বলতে হবে। এই কয়েকজন মানুষ শুনে কিছু পরামর্শ দেবেন। সেখানে থেকেও বেরিয়ে আসতে পারে সমাধান। তাই নিজের মধ্যে সব দুঃখ চেপে রাখবেন না।

ছেড়ে যাওয়ার হুমকি দিতে পারেন: আপনি তাকে মন প্রাণ দিয়ে ভালোবাসেন। তবে তিনি যদি এতকিছুর পরও আপনার কথা না শোনেন, সেক্ষেত্রে হুমকি দিতে হবে ছেড়ে যাওয়ার। আপনি সংসারের এই দুর্দিন যে সহ্য করবেন না, এটা বুঝিয়ে দিন। তবেই সমস্যার সমাধান করা সম্ভব। তাই ছেড়ে যাওয়ার হুমকি আপনি দেবেন। তবে এরপরও একই জিনিস চলতে থাকলে কোনো বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। তিনিই আপনাকে সমস্যার সমাধান করে দিতে পারবেন। তাই চিন্তার কারণ নেই।

সূত্র: এই সময়