ঢাকা,  মঙ্গলবার  ১৮ জুন ২০২৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

স্টিলের পাত্রে রান্না করেন? যে বিষয়গুলো খেয়াল করবেন

লাইফস্টাইল ডেস্ক

প্রকাশিত: ২১:১০, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩

স্টিলের পাত্রে রান্না করেন? যে বিষয়গুলো খেয়াল করবেন

প্রতীকী ছবি

রান্নার পাত্র হিসেবে স্টিলের ব্যবহার করা হয় অনেক বাড়িতেই। এমন অনেক ধাতু আছে যার পাত্রে রান্না করা ক্ষতিকর বলে বিবেচিত হয়। তবে এদিক থেকে স্টিলের পাত্রকে নিরাপদ বলে মনে করেন বেশিরভাগ মানুষ। কিন্তু এই পাত্রে রান্না করার আগে কিছু বিষয় জানা থাকা জরুরি। নয়তো উপকারের বদলে ক্ষতি হতে পারে। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

ডিপ ফ্রাই করবেন না

কিছু কিছু খাবার ডিপ ফ্রাই করে খাওয়া হয়। তবে স্টিলের পাত্রে ডিপ ফ্রাই করার কাজটি কখনোই করবেন না। কারণ এ ধরনের পাত্র অনেক হালকা হয়, এগুলোর নিচের অংশও অনেক পাতলা হয়ে থাকে। এর ভেতরে কোনোকিছু ডিপ ফ্রাই করলে তার বাইরের অংশ পুড়ে যাবে এবং ভেতরটা কাঁচা থেকে যাবে। এতে পেটের সমস্যা হবে।

প্রথমেই লবণ দেবেন না

অনেকে রান্নার সময় শুরুতেই লবণ ছিটিয়ে দেন। স্টিলের পাত্রে রান্নার সময় এই কাজ কখনো করবেন না। কারণ প্রথমেই যদি আপনি লবণ ছিটিয়ে দেন তাহলে স্টিলের উপরের প্রলেপ উঠে যেতে পারে। এছাড়া ভিনেগার, লেবু বা অ্যাসিডিক কোনো খাবার যদি স্টিলের পাত্রে রান্না করেন তাহলে রান্না শেষে যত দ্রুত সম্ভব পাত্র ধুয়ে ফেলবেন। নয়তো স্টিলের পাত্রের সঙ্গে সেই খাবারের বিক্রিয়া হতে পারে।

গ্রিল করবেন না

যেকোনো স্ট্রিলের পাত্রের নিচটা পাতলা ধরনের হয়। এ ধরনের পাত্রে তাই কোনোভাবেই গ্রিল করা যাবে না। গ্রিল করতে হলে সব সময় মোটা তলাযুক্ত পাত্র ব্যবহার করবেন। নয়তো গ্রিল করার সময় তাতে খাবার ধরে যেতে পারে। স্টিলের পাত্রে যদি খাবার লেগে যায় তাহলে সেই খাবার তো নষ্ট হবেই, সেইসঙ্গে পাত্রটিও নষ্ট হবে।

বেশি আঁচে রান্না করবেন না

স্টিলের কখনো উচ্চ তাপে রান্না করবেন না। কারণ এটি খুব হালকা প্রকৃতির ধাতু। বেশি আঁচে এটি পুড়ে যায়। আবার বেশি আঁচে রান্না করলে এতে আগুনও ধরে যেতে পারে। এতে রান্না করা খাবার খুব দ্রুতই ‍পুড়ে যাবে যদি বেশি তাপে রান্না করেন। তাই স্টিলের পাত্রে রান্না করার সময় চুলার আঁচ কমিয়ে রাখুন। 

স্টিলের পাত্রে খাওয়া নিরাপদ

স্টিলের পাত্রে রান্না করার চেয়ে এতে খাবার খাওয়া তুলনামূক বেশি নিরাপদ। তাই যেকোনো খাবার খাওয়ার পাত্র হিসেবে স্টিল ব্যবহার করা যাবে। তবে রান্নার ক্ষেত্রে এই বিষয়গুলো মাথায় রাখতে হবে। নয়তো উপকারের বদলে ক্ষতি বেশি হতে পারে।