ঢাকা,  মঙ্গলবার  ২৮ মে ২০২৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

চুলের যত্নে ল্যাভেন্ডার

লাইফস্টাইল ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৯:৫৭, ৩১ আগস্ট ২০২৩

চুলের যত্নে ল্যাভেন্ডার

ছবি: সংগৃহীত

সুন্দর চুল কে না চায়। এজন্য প্রয়োজন সঠিক পরিচর্যা। চুলের যত্নে প্রথমেই আসে তেলের কথা। কিন্তু আজকাল অনেকেই তেল লাগাতে পছন্দ করেন না। কিন্তু শুষ্ক চুলে প্রাণ ফেরানো থেকে শুরু করে চুল পড়া রোধ, সব কিছুতেই কার্যকরী তেল। বেশ কয়েক বছরে বিউটি ওয়ার্ল্ডে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এসেনশিয়াল অয়েল। এ সব প্রাকৃতিক তেলের গুণে মাথার ত্বক ও চুলের নানা সমস্যার সমাধান হয় নিমেষেই। এই প্রাকৃতিক তেলের তালিকায় অন্যতম হল ল্যাভেন্ডার অয়েল। বিশেষজ্ঞদের মতে, ল্যাভেন্ডার তেল চুল পড়া নিয়ন্ত্রণ করে, খুশকি কমায় এবং চুলের উজ্জ্বলতাও বাড়ায়।

চুলে ল্যাভেন্ডার তেলের উপকারিতা
চুলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে : গবেষণায় দেখা গেছে, চার সপ্তাহ ধরে প্রতিদিন একবার ল্যাভেন্ডার তেল ব্যবহার করলেই উপকার মেলে। হেয়ার ফলিকলে পর্যাপ্ত পরিমাণে পুষ্টি পৌঁছায়। রক্ত সঞ্চালণ বাড়ে, ফলে চুলের বৃদ্ধি হয়। তবে এ বিষয়ে আরও গবেষণা প্রয়োজন।

রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়: মাথার ত্বকে ল্যাভেন্ডার তেল ম্যাসাজ করলে রক্ত সঞ্চালন বাড়ে। এতে মাথার ত্বক সুস্থ থাকে এবং ফলিকলে পুষ্টি পৌঁছায়। যার ফলে চুল মজবুত হয় এবং চুল পড়াও কমে। উকুনের সমস্যা কমে। গবেষণায় দেখা গেছে, উকুনের সমস্যা সমাধানেও কার্যকরী ভূমিকা পালন করে ল্যাভেন্ডার অয়েল। ল্যাভেন্ডার তেলের সঙ্গে টি ট্রি অয়েলের মিশিয়ে লাগালে উকুনের সমস্যা থেকে মুক্তি মেলে।

অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল গুণ: ল্যাভেন্ডার তেলে রয়েছে অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল গুণ। এটি ব্যাকটেরিয়া এবং ছত্রাক সংক্রমণ রোধে খুবই কার্যকর। ফলে মাথার ত্বকে চুলকানি, খুশকি এবং অন্যান্য সংক্রমণ কমাতে এই তেল বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

মানসিক চাপ দূর করে: মানসিক চাপ, উদ্বেগ চুল ঝরার অন্যতম কারণ। ল্যাভেন্ডার তেলের সুগন্ধ মন শান্ত করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। এর ফলে উদ্বেগ, দুশ্চিন্তা কমে। চুল পড়াও রোধ হয়। তাই চুলে লাগাতেই পারেন এই তেল।

কী ভাবে ব্যবহার করবেন ল্যাভেন্ডার তেল?

চুল আঁচড়ে নিয়ে দুই ভাগে ভাগ করুন। এক একটা ভাগে ল্যাভেন্ডার তেল ম্যাসাজ করুন কয়েক মিনিট। এই ভাবে মাথার ত্বক ও চুলের ডগা পর্যন্ত ভাল ভাবে তেল লাগিয়ে নিন। তেল মাখা হয়ে গেলে চুল বেঁধে রাখুন ৩০ মিনিট। তারপর শ্যাম্পু করে ফেলুন।
সিরাম হিসেবে : সিরাম হিসেবেও চুলে লাগাতে পারেন ল্যাভেন্ডার তেল। এই তেলের সুগন্ধ মন শান্ত করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। চুলের উজ্জ্বলতা বাড়বে এই তেল ব্যবহারে।

হেয়ার প্রোডাক্টের সঙ্গে ব্যবহার করুন: শ্যাম্পু, কন্ডিশনার, চুলে মাখার তেল বা সিরামে কয়েক ফোঁটা ল্যাভেন্ডার তেল মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন। এ ছাড়া, ল্যাভেন্ডার অয়েল আছে এমন হেয়ার প্রোডাক্টও কিনতে পারেন।

হেয়ার মাস্ক : ল্যাভেন্ডার তেলের সঙ্গে নারকেল তেল বা আমন্ড তেল মিশিয়ে চুলে ও মাথার ত্বকে লাগান। কয়েক মিনিট ম্যাসাজ করুন। আধ ঘণ্টা পরে শ্যাম্পু করে ফেলুন। সপ্তাহে একবার এটি করুন। এতে চুলের শুষ্ক রুক্ষভাব দূর হয়ে উজ্জ্বলতা ফিরবে।