ঢাকা,  শনিবার  ২২ জুন ২০২৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

সুনেরাহ ও তিশার সঙ্গে রাজের স্ক্যান্ডাল নিয়ে এবার মুখ খুললেন পরীমনি

প্রকাশিত: ১৯:৫৬, ৩০ মে ২০২৩

সুনেরাহ ও তিশার সঙ্গে রাজের স্ক্যান্ডাল নিয়ে এবার মুখ খুললেন পরীমনি

সুনেরাহ ও তিশার সঙ্গে রাজের স্ক্যান্ডাল নিয়ে এবার মুখ খুললেন পরীমনি

আবার আলোচনার কেন্দ্রে ঢাকাই সিনেমার তরুণ অভিনেতা শরিফুল রাজ। সঙ্গে দুই অভিনেত্রী সুনেরাহ বিনতে কামাল ও তানজিন তিশা। সোমবার দিবাগত রাতে রাজের ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে বেশ কিছু ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে। এসব ছবি ও ভিডিওতে মদ্যপ অবস্থায় দেখা গেছে সুনেরাহ ও তানজিন তিশাকে। অসংলগ্ন ও অশ্লীল ভাষায় কথা বলতে শোনা গেছে সুনেরাহকে। বিষয়টি নিয়ে জোর চর্চা চলছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে রাজ ও তিশা এখনো ঘটনাটি নিয়ে টুঁ শব্দ না করলেও মুখ খুলেছেন সুনেরাহ। এসব ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার পেছনে পরীমনির হাত আছে বলে আকারে ইঙ্গিতে দাবি করেন সুনেরাহ।

এ প্রসঙ্গে মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে গণমাধ্যমের সঙ্গে সরাসরি কথা বললেন পরীমনি।

তিনি বলেন, আমি এখনো কিছু জানি না। আমার নাম উল্লেখ না করে কে কী বলেছে তা জানা নেই আমার। আমি স্বামী ও সন্তান নিয়ে বেশ ভালো আছি।

এর আগে সুনেরাহ তার স্ট্যাটাসে জানান, ‘আমি রাজকে ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে চিনি। সে আমার অনেক ভালো বন্ধু ছিল। তবে তার বিয়ের পর থে‌কে আমাদের প্রায় যোগাযোগই ছিল না। সেদিন একটা ডাবিং স্টুডিওতে আমা‌দের দেখা হলো। আমরা একস‌ঙ্গে ছ‌বি তুললাম। আমি জানি না, পুরোনো বন্ধুর সাথে একটা ছবি তোলা কী এমন অপরাধের বিষয়! তার স্ত্রী (পরীমণি) কোনো কারণ ছাড়াই এটা নিয়ে পাগলপ্রায় হয়ে গেল। যে ভিডিওগুলো আপনারা দেখেছেন, (শরিফুল রাজের অ্যাকাউন্টে) সেগুলো পাঁচ বছর আগের। ‘ন ডরাই’ সিনেমার সময়ের।’

তিনি আরো লেখেন, ‘তখন এভাবেই আমরা মজা করতাম, আর প্রতিদিন এভাবে কথা বলার প্র্যাকটিস করতাম। কারণ আমাদেরকে (বিশেষ করে আমাকে) সিনেমার প্রয়োজনে এভাবে গালি দিতে হয়েছে। তাকে (রাজকে) একটি ছবি আমি তখন পাঠিয়েছিলাম, তাকে এটা জানানোর জন্য যে আমি শুটিংয়ে মার খেয়েছি (যেখানে লিয়াকত আমাকে মারে, ন ডরাই সিনেমাটা যাঁরা দেখেছেন, তারা জানবেন), মার খেয়ে কালশিটে পড়ে গিয়েছিল, উঠে দাঁড়াতেও পারছিলাম না। শুটিংয়ে যেতে পারব না এটা জানানোর জন্য ছবিটা পাঠিয়েছিলাম। তবে শুধু তাকে না, পরিচালককেও পাঠিয়েছিলাম।’

এছাড়া সুনেরাহ বলেন, ‘দয়া করে এটা নিয়ে বাড়াবাড়ি করবেন না। কারণ আমি নিশ্চিত, ওর (রা‌জের) আইডি হ্যাকড হয়েছে। আর কে হ্যাক করেছে, সেটা আমরা সবাই জানি, প্রকাশ্যে হইচই করতে যার কোনো কারণ লাগে না (সে-ই করেছে)। এ ভিডিওগুলো যারা ছড়াবে তাদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে আমি আইনগত ব্যবস্থা নেব।’