ঢাকা,  শনিবার  ২২ জুন ২০২৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

বাংলাদেশে গাড়ি কারখানা দেখে মুগ্ধ দ. কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত

প্রকাশিত: ০২:০৪, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩

বাংলাদেশে গাড়ি কারখানা দেখে মুগ্ধ দ. কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত

সংগৃহিত ছবি

ঢাকায় নিযুক্ত দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত পার্ক ইয়ং-সিক বাংলাদেশে তৈরি গাড়ির কারখানা দেখে রীতিমতো মুগ্ধ হয়েছেন। এই গাড়ি কারখানা বাংলাদেশের উন্নয়নের পরবর্তী ধাপের অনন্য  উদাহরণ বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) গাজীপুরের কালিয়াকৈর হাইটেক পার্কে অবস্থিত ফেয়ার টেকনোলজি-হুন্দাই গাড়ি উৎপাদন কারখানা পরিদর্শন করেন ঢাকায় নিযুক্ত দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত পার্ক ইয়ং-সিক। এ সময় তিনি গাড়ি কারখানার বিভিন্ন সাইট ঘুরে দেখেন। বাংলাদেশে কীভাবে গাড়ি নির্মিত হচ্ছে,  এটা দেখে তিনি উচ্চ্বাস প্রকাশ করেন।

গাড়ি উৎপাদন কারখানা ঘুরে দেখার পর উপস্থিত সাংবাদিকদের ঢাকায় নিযুক্ত দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত পার্ক ইয়ং-সিক বলেন, বাংলাদেশে গাড়ি উৎপাদন কারখানা দেখে আমি খুশি হয়েছি। বাংলাদেশ কীভাবে উন্নয়নের পরবর্তী ধাপে এগিয়ে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত হচ্ছে, এই এই গাড়ি উৎপাদন কারখানা তার একটি অনন্য উদাহরণ।



তিনি আরও বলেন, আমি মনে করি, আমদানি করা সেকেন্ড-হ্যান্ড গাড়ির ওপর নির্ভরতা বাংলাদেশের কমানো উচিৎ। তাহলে এটি পরিবেশের জন্যও ভালো হবে। অনেক দেশ ইতোমধ্যেই পুরনো গাড়ি আমদানি বন্ধ করে দিয়েছে। বাংলাদেশও একই ধরনের নীতি গ্রহণ করতে পারে।

দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, বাংলাদেশে আরও বিনিয়োগে আগ্রহী কোরিয়া। তবে কর ব্যবস্থার মাধ্যমে বাংলাদেশে বিনিয়োগ পরিবেশ আরও উন্নতির ওপর জোর দেন তিনি।

ফেয়ার গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান রুহুল আলম আল মাহবুব বলেন, এখান থেকে আমাদের যাত্রা শুরু। আমাদের আরও অনেক দূরে যেতে হবে। আমরা আরও আধুনিক গাড়ি উৎপাদন ব্যবস্থায় যেতে চাই। সে লক্ষ্যে আমাদের দক্ষ কর্মী তৈরি করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, মঙ্গোলিয়া, ভিয়েতনাম, লাওস এবং আফ্রিকার অনেক দেশ সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি ব্যবহার বন্ধ করেছে। পরিবেশ বাঁচাতে আমাদেরও সেটা করতে হবে।



গাড়ির কারখানা পরিদর্শনকালে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকর্তারা জানান, কোরিয়া-বাংলাদেশের যৌথ উদ্যোগে নির্মিত এই গাড়ি কারখানায় প্রতি মাসে ১৫০টি গাড়ি উৎপাদন করা হয়ে থাকে। তবে এখানে প্রতি মাসে ৬০০ গাড়ি উৎপাদনের সক্ষমতা রয়েছে।

কারখানা পরিদর্শনের পর বক্তব্য রাখেন ইংরেজি দৈনিক ডেইলি সানের সম্পাদক ও ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশের (ডিকাব) সভাপতি রেজাউল করিম লোটাস। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ফেয়ার টেকনোলজি লিমিটেডের পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মুতাসিম দাইয়ান, ডিকাব  সাধারণ সম্পাদক ইমরুল কায়েস প্রমুখ।