ঢাকা,  মঙ্গলবার  ১৮ জুন ২০২৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

‘ইভিএমে প্রথম ভোট দিলাম, ভালো লাগছে’

প্রকাশিত: ১০:২৩, ২৫ মে ২০২৩

‘ইভিএমে প্রথম ভোট দিলাম, ভালো লাগছে’

জেসমিন আকতার।

সঠিক সময়ে ভোট শুরু হয়েছে নগরীর কানাইয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে। শুরুর দিকে ভোটারসংখ্যা উল্লেখযোগ্য না হলেও ইভিএমে ভোট দিয়ে ফেরা নগরবাসী জানালেন তাদের সন্তুষ্টির কথা।

এই কেন্দ্রের প্রথম দিকে ভোট দিয়ে বেরিয়েছেন ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের ভোটার জেসমিন আকতার। ‘এবারসহ আমি মোট দুবার ভোট দিলাম। ইভিএমে প্রথম ভোট দিলাম, ভালো লাগছে। কোনো ঝামেলা মনে হয়নি।’

পেছনেই ছিলেন একই ওয়ার্ডের ভোটার মরজিনা খাতুন। তিনিও অভিজ্ঞতা জানিয়ে বললেন, ‘ইভিএমে ভোট দিলাম। ভোট দিয়ে ভালো লাগছে। পোলিং এজেন্টরা ভালো ছিল।’

এই কেন্দ্রে ভোট দেবেন টেবিল ঘড়ি নিয়ে স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থী জায়েদা খাতুন এবং তাঁর ছেলে এই নগরীর সর্বশেষ মেয়র জাহাঙ্গীর আলম। এই কেন্দ্রের ৭টি বুথে ভোট দেবেন ২ হাজার ৩৫৬ জন ভোটার। অন্যদিকে গাজীপুরে ভোট সুষ্ঠু করতে এ নগরীর ৪৮০টি ভোটকেন্দ্রে ৪ হাজার ৪৩৫টি সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। 

নগরীতে মেয়র পদে আটজন, সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৭৮ জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২৪৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

মেয়র পদপ্রার্থীরা হলেন—মাছ প্রতীকে গণফ্রন্টের প্রার্থী আতিকুল ইসলাম, নৌকা প্রতীকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী অ্যাডভোকেট মো. আজমতউল্লা খান, লাঙ্গল প্রতীকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী এম এম নিয়াজ উদ্দিন, হাতপাখা প্রতীকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের গাজী আতাউর রহমান, গোলাপ ফুল প্রতীকে জাকের পার্টির মো. রাজু আহাম্মেদ।

এ ছাড়া স্বতন্ত্র থেকে মেয়র পদে টেবিল ঘড়ি প্রতীকে জায়েদা খাতুন (সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের মা), ঘোড়া প্রতীকে মো. হারুন-অর-রশীদ ও হাতি প্রতীকে সরকার শাহনূর ইসলাম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।