ঢাকা,  মঙ্গলবার  ১৮ জুন ২০২৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

গাজীপুরে রেলগেট সড়ক বেহাল, দ্রুত মেরামতের দাবি

প্রকাশিত: ১৯:৫৭, ৭ জুন ২০২৪

গাজীপুরে রেলগেট সড়ক বেহাল, দ্রুত মেরামতের দাবি

সংগৃহিত ছবি

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের জয়দেবপুর লেভেল ক্রসিংয়ের দুই পাশে বেহাল সড়কের জন্য দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে কয়েক লাখ মানুষকে। ছোট বড় গর্ত সৃষ্টি হওয়ায় সড়কটি প্রায় চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সড়ক সংস্কার ও মেরামতের দাবিতে মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে এলাকাবাসী।

স্থানীয়রা জানান, শিববাড়ি-রাজবাড়ী সড়ক গাজীপুর জেলা প্রশাসকের নগর ভবন, পুলিশ সুপার কার্যালয়, জেলার সব আদালত, তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ অফিস ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এসব প্রতিষ্ঠানগুলোয় বিভিন্ন প্রয়োজনে যাতায়াত করতে হয় লাখো মানুষের। এ সড়কের জয়দেবপুর লেভেল ক্রসিংয়ের দুই পাশে ২০০ মিটার এলাকাজুড়ে বড় বড় গর্ত হওয়ায় পানি জমে কাদার সৃষ্টি হয়েছে। মেরামতের অভাবে সড়কটিতে সামান্য বৃষ্টির পানিতেই চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। ফলে যানবাহনের চালক, যাত্রী ও পথচারীদের অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এমনিতে লেভেল ক্রসিংয়ের কারণে এই এলাকায় দীর্ঘ যানজট লেগে থাকত। এখন সড়কের এমন দশা হওয়ায় যানজট প্রকট আকার ধারণ করেছে। ফলে ভোগান্তি বেড়েছে এই সড়ক ব্যবহারকারীদের।

এদিকে জয়দেবপুর রেলস্টেশনের রেলগেট এলাকায় সড়ক সংস্কার, বাইপাস সড়ক নির্মাণ, সিএনজি ও অটোরিকশা নিয়ন্ত্রণসহ বাসযোগ্য সিটির দাবিতে এলাকাবাসীর অংশগ্রহণে মানববন্ধন হয়েছে।

শুক্রবার (৭ জুন) সকালে শহরের রেলগেট এলাকায় গাজীপুর ঐতিহ্য ও উন্নয়ন নামে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এ কর্মসূচি পালন করে। সংগঠনের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার শামসুল হকের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, আলী আকবর, অ্যাড. জাকির হোসেন, ব্যবসায়ী সমিতির নেতা আলী আক্কাস।

বক্তারা বলেন, গাজীপুর একটি বিশেষ জেলা হলেও এখানে রাস্তাঘাটের অবস্থা বেহাল। জয়দেবপুর রেলগেট এলাকায় ভাঙাচোরা সড়ক দিয়ে প্রতিনিয়ত দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এখানকার অধিবাসীদের। এ ছাড়া লেভেল ক্রসিংয়ে দীর্ঘ সময় যানজটে পড়তে হচ্ছে নগরবাসিকে। কিন্তু সমস্যা সমাধানে কোনো উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে না। তাই অবিলম্বে সড়ক সংস্কার, রেলস্টেশন দুই পাশে বাইপাস সড়ক ও ফ্লাইওভার নির্মাণ করে সাধারণ মানুষকে দুর্ভোগ থেকে মুক্তি দিতে হবে।

স্থানীয় গাজীপুর ঐতিহ্য ও উন্নয়ন সংগঠনের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার শামসুল হক বলেন, এত দিন জয়দেবপুরের রেলগেট আমাদের জন্য গলার কাঁটা ছিল। এখন এ সড়কের ভাঙাচোরা ও খানাখন্দ আমাদের সমস্যার অন্যতম কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে সড়কটি মেরামত না করায় বড় বড় গর্ত হয়ে পানি জমে দুর্ভোগ আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। এ কারণে এখানে যানজট লেগে থাকছে এবং প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে। জেলা প্রশাসন তার বিভিন্ন কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও এদিকে নজর দেন না। আমরা সিটি করপোরেশনে ট্যাক্স দিচ্ছি কিন্তু সেবা পাচ্ছি কোথায়।

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ এস এম সফিউল আজম সাংবাদিকদের বলেন, আগে কয়েকবার মেরামত করা হলেও রাস্তাটি কিছুদিন পরপরই ভেঙেচুরে যায় এবং জনদুর্ভোগ বাড়ে। এ কারণে রাস্তাটি আরসিসি করার জন্য ইতিমধ্যে ডিপিপি প্রস্তুত করা হয়েছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে রাস্তাটি সংস্কার করে চলাচল উপযোগী করা হবে।