বুধবার  ০৫ অক্টোবর ২০২২,   আশ্বিন ১৯ ১৪২৯,  ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

ফুটবলারদের ডলার-টাকা হারানোর ঘটনায় তদন্ত করছে এপিবিএন

প্রকাশিত: ১৪:৫০, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২

ফুটবলারদের ডলার-টাকা হারানোর ঘটনায় তদন্ত করছে এপিবিএন

সাফজয়ী নারীরা।

সাফ চ্যাম্পিয়ন হয়ে দেশে ফিরেছেন, তবে দেশে পৌঁছেই দুঃসংবাদ শুনতে হলো দলের দুই খেলোয়াড়কে।রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কৃষ্ণা রানী সরকার ও শামসুন্নাহারের ডলার হারিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ছাদখোলা বাসে বাফুফে ভবনে এসে ব্যাগ খুলে তারা ডলার খুঁজে পাননি।

তবে এ বিষয়ে ইতোমধ্যে তদন্ত শুরু করেছে বিমানবন্দরে কর্মরত এয়ারপোর্ট আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)। 

এপিবিএনের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, ‘সেই ফ্লাইটে অনেক লাগেজ ছিল। কোন লাগেজ থেকে ডলার বা টাকা খোয়া গেছে এ বিষয়ে আমাদেরকে জানানো হয়নি। কোনো অভিযোগ করা হয়নি। আমরা সংবাদ দেখে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে তদন্ত করছি। সিসিটিভি ফুটেজ দেখা হচ্ছে। লিখিত অভিযোগ পেলে লাগেজ খুঁজতে ও প্রকৃত ঘটনা জানতে সহজ হবে।’

কিন্তু ব্যাগ থেকে ডলার হারানোর বিষয়টি জানে না বলে দাবি করছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। বিমান বলছে, এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে তারা তদন্ত করবে ও বিষয়টি খতিয়ে দেখবে।

এর আগে এ বিষয়ে বাংলাদেশ জাতীয় নারী দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বলেন, ‘কৃষ্ণা ও শামসুন্নাহারের ডলার হারিয়েছে বলে জানিয়েছে। কৃষ্ণার ৯০০ ডলার ও বাংলাদেশি ৫০ হাজার টাকা এবং শামসুন্নাহারের ৪০০ ডলার হারিয়েছে। তাদের ধারণা, বাংলাদেশ বিমানবন্দর লাগেজ বেল্ট থেকে এটি হয়েছে।’

গতকাল বুধবার রাতে দুজন বিষয়টি খেয়াল করেছেন। তবে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ অথবা বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সকে এখনো কোনো অভিযোগ জানানো হয়নি। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ফেডারেশন থেকে বিমানবন্দরে যোগাযোগ করা হতে পারে বলে জানান গোলাম রব্বানী ছোটন।

বাংলাদেশ বিমানবন্দরে এ রকম অর্থ বা মালামাল খোয়ার ঘটনা নতুন নয়। যদিও কৃষ্ণা ও শামসুন্নাহার উভয়ে তালা দিয়েই লাগেজ ব্যাগেজে ডলার রেখেছিলেন। এরপরও এত ডলার লাগেজ ব্যাগে রাখায় সংশ্লিষ্ট অনেকেই বিস্মিত হয়েছেন।