রোববার  ২৬ জুন ২০২২,   আষাঢ় ১২ ১৪২৯

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

কেন ২১ জুন সবচেয়ে বড় দিন?

প্রকাশিত: ২১:৪৯, ২১ জুন ২০২২

কেন ২১ জুন সবচেয়ে বড় দিন?

সবচেয়ে বড় দিন

ছোটবেলায় পাঠ্যবইতে দীর্ঘতম দিন এবং দীর্ঘতম রাতের কথা কমবেশি সবাই পড়েছি। আজ সেই ২১ জুন, বছরের সবচেয়ে দীর্ঘতম দিন। অন্যদিকে ২২ ডিসেম্বর বছরের সবচেয়ে দীর্ঘতম রাত।

আজ উত্তর গোলার্ধের দীর্ঘতম দিন। সূর্য এদিন কর্কটক্রান্তি বৃত্তের ওপরে থাকে। একে বলা হয় সূর্যের উত্তরায়ন। বছরের এই দিনেই সূর্যের দিকে বেশি হেলে থাকে উত্তর মেরু। আর দীর্ঘতম দিনের পাশাপাশি এটাই হল সবচেয়ে উত্তর গোলার্ধের ছোট রাত। অন্যদিকে আবার দক্ষিণ গোলার্ধে এদিন ঠিক উল্টো অবস্থান। সেখানে ২১ জুন দিন সবচেয়ে ছোট এবং রাত সবচেয়ে বড়। 

তবে কেন হয় এমনটা আর কতটুকুই বা ছোট-বড় হয় দিন রাত। আবহাওয়া অফিসের তথ্য বলছে, আজ সূর্যোদয় হয়েছে ৫টা ১২ মিনিটে আর সূর্যাস্ত ৬টা ৪৮ মিনিটে। সে হিসেবে আজ দিন ছিল ১৩ ঘণ্টা ৩৬ মিনিট। 

২১ জুন কেন বড় দিন?
 
মূলত ঋতু পরিবর্তনের পাশাপাশি দিন ও রাতের সময়কালও বদলে যায়। বছরের ৩৬৫ দিন কখনো সমান থাকে না। কখনো দিন ছোট হয় এবং রাত বড় হয়, আবার কখনো দিন বড় হয় এবং রাত ছোট হয়। ঠিক এমনভাবেই, বছরে এমন একটি দিন আসে, যাকে সবচেয়ে বড় দিন এবং রাত সবচেয়ে ছোট হিসেবে ধরা হয়। আজ ২১ জুন, মঙ্গলবার বছরের সবচেয়ে বড় দিন।
 
সৌরজগতের নিয়ম অনুযায়ী পৃথিবী সূর্যের চারদিকে ঘোরার সময় একদিকে একটু হেলে থাকে। ফলে কখনো উত্তর গোলার্ধ সূর্যের কাছে আসে, কখনো দক্ষিণ গোলার্ধ। এই দিনে সূর্যের রশ্মি পৃথিবীতে দীর্ঘ সময় ধরে পড়ে। তাই ২১ জুন বছরের দীর্ঘতম দিন। এই ঘটনাটিকে ‘সামার সলসটিস’ বলা হয়। ২১ জুন উত্তর গোলার্ধ সূর্যের সবচেয়ে কাছাকাছি আসে। সূর্যকে ২১ জুন মধ্যগগনে, প্রায় মাথার উপরে দেখা যায়। ২০ থেকে ২৩ জুনের মধ্যে ‘সামার সলসটিস’ হয়ে থাকে।

কর্কট আর মকর নামে দু’টি ক্রান্তি রেখা চলে গেছে পৃথিবীর ওপর দিয়ে। আর ওদের মধ্যে দিন কতটা বড় হবে সেটা ঠিক করে দেয় কর্কটক্রান্তি রেখা। যাকে উত্তরের রেখাও বলা যায়। ২১ জুন সকাল আর সন্ধ্যার সূর্যটা সবথেকে বেশি হেলে থাকে ওই উত্তরেই। আর ঠিক দুপুরবেলা সূর্য থাকে কর্কটক্রান্তি রেখার একেবারে মাঝ বরাবর।

বছরে দু'বার ঘটে সলসটিস

সলসটিস বছরে দু'বার ঘটে। একবার গ্রীষ্মের মৌসুমে, যখন সূর্যকে উত্তর বা দক্ষিণ মেরু থেকে দেখা যায়, তখন বছরের সবচেয়ে বড় দিন হয় অর্থাৎ ২১ জুন। সূর্যের রশ্মি পৃথিবীতে দীর্ঘসময় উপস্থিত থাকে। দ্বিতীয়টি ঘটে ২২ ডিসেম্বর। এই দিনটি বছরের সবচেয়ে ছোট দিন এবং দীর্ঘতম রাত। এই দিনে সূর্যের রশ্মি অল্প সময়ের জন্য পৃথিবীতে থাকে। পৃথিবীর নিয়মে উত্তর গোলার্ধে আজকের পর থেকে ছোট হওয়া শুরু করবে দিন, আর রাত হবে বড়।

এ দিন কিছু সময়ের জন্য নিজের ছায়াও দেখা যায় না
 
মজার ব্যাপার হচ্ছে, ২১ জুন মানুষ নিজের ছায়াও দেখতে পায় না। যখন সূর্য ঠিক কর্কটক্রান্তি রেখার উপর থাকে, তখন ছায়া কিছু সময়ের জন্য অদৃশ্য হয়ে যায়। এটি প্রকৃতির এক বিস্ময়কর ঘটনা।

পালিত হয় বিভিন্ন আচার অনুষ্ঠান
 
বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এই দিনে পালিত হয় বিভিন্ন আচার অনুষ্ঠান। প্রাচীনকালে ইউরোপের মানুষ এই দিনটি থেকে তাদের বছর শুরু করত বলে জানা যায়। মূলত গ্রীষ্মের সময় যে দিনটি সবচেয়ে বড় হতো সেই দিনের পর থেকে ফসল লাগানো এবং আগের ফসল কাটত তারা।

সূত্র: বোল্ডস্কাই