• শুক্রবার   ২০ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৬ ১৪২৯

  • || ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩

গাজীপুর কথা

ইভটিজিং ঠেকাবে মারুফের হেল্প ওমেন’স বাংলাদেশ অ্যাপ

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারি ২০২২  

বর্তমান সমাজের প্রতিনিয়ত ইভটিজিং থেকে শুরু করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাইবার বুলিংয়ের শিকার হচ্ছেন সব বয়সের নারী। কখনো লোকলজ্জায়, ভয়ে, কখনো পরিবারের বাধায় মুখ বুজে সহ্য করতে হচ্ছে সব। অনেককেই বেছে নিতে হয় আত্মহত্যার মতো চরম পন্থা।

এবার ইভটিজিং-সাইবার বুলিংয়ের মতো ঘটনা প্রতিরোধে অ্যাপ বানিয়েছেন নেত্রকোণার দুর্গাপুর উপজেলার কলেজছাত্র মুহতাসিম আলম মারুফ। হেল্প ওমেন’স বাংলাদেশ নামে এই অ্যাপ পাড়া-মহল্লার ইভটিজিং-সাইবার বুলিং শুরুতেই প্রতিরোধ করবে। অ্যাপটি নিয়ে এরই মধ্যে কাজ শুরু করেছেন দুর্গাপুরের সুসং সরকারি মহাবিদ্যালয়ের এইচএসসি পরীক্ষার্থী ও অ্যাপটির নির্মাতা মুহতাসিম।

সম্প্রতি নেত্রকোণার দুর্গাপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরে অনুষ্ঠিত বিজ্ঞান মেলায় হেল্প ওমেন’স বাংলাদেশ অ্যাপটি সবার সামনে উপস্থাপন করেছেন কলেজছাত্র মুহতাসিম আলম মারুফ। শুরুতেই সবার নজর কেড়েছে এ অ্যাপ। বিশেষ করে নারী শিক্ষার্থীদের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে রূপ নিয়েছে এটি। যদিও অ্যাপটি এখনো ডায়াল ভার্সনে চলমান, তবে খুব দ্রুত প্লে-স্টোরে সবার জন্য উন্মুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন অ্যাপটির নির্মাতা।

এর আগে, ২০১৯ সাথে ৩৬০ ব্রাউজার তৈরি করে সবার নজরে আসেন মারুফ। শিক্ষার্থী বান্ধব অ্যাডাল্ট কনটেন্ট মুক্ত ওয়েব ব্রাউজার তখন সবার নজরে আসে। টানা এক মাসের প্রচেষ্টায় তৈরি করা ঐ ব্রাউজার শিক্ষার্থীদের ক্ষতিকর বিজ্ঞাপন থেকে দূরে রাখার পাশাপাশি ওয়েব পেজের লোভনীয় বিজ্ঞাপনের ফাঁদ থেকেও রক্ষা করে।

 

দুর্গাপুর বিজ্ঞান মেলায় সবার আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে ওঠে মুহতাসিম আলম মারুফের হেল্প ওমেন’স বাংলাদেশ অ্যাপ

দুর্গাপুর বিজ্ঞান মেলায় সবার আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে ওঠে মুহতাসিম আলম মারুফের হেল্প ওমেন’স বাংলাদেশ অ্যাপ

সেই থেকে ইন্টারনেটে সংযুক্ত থেকে নানা সময়ে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ উদ্ভাবনসহ শিক্ষাবান্ধব উপকরণ তৈরিতে মনোনিবেশ করে আসছেন বলে জানান মারুফ।

ডেইলি বাংলাদেশকে মুহতাসিম আলম মারুফ বলেন, কেউ ইভটিজিং কিংবা সাইবার বুলিং-এর শিকার হলে হেল্প ওমেন’স বাংলাদেশ অ্যাপে অভিযোগ করতে পারবেন। এর মধ্য দিয়ে দ্রুত আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ ও শুরুতেই এসব ঘটনা প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে। ইভটিজিং ও সাইবার বুলিং-এর শিকার নারীরাও সামাজিকভাবে সচেতন হবেন। কমে যাবে আত্মহত্যার প্রবণতা।

তিনি আরো বলেন, হেল্প ওমেন’স বাংলাদেশ অ্যাপ তৈরির কাজ এরই মধ্যে প্রায় শেষ। অ্যাপটিতে রয়েছে ইভটিজিং ও সাইবার বুলিং সম্পর্কে ধারণা, এ অপরাধের শাস্তি সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য, অভিযোগ করার পদ্ধতি। পাশাপাশি পাওয়া যাবে বাল্যবিয়ে সম্পর্কে ধারণা, বিভিন্ন ব্লগ, চিত্র ইত্যাদি। আমরা প্রশাসনের সঙ্গে সমন্বয় করেছি, তারাও আমাদের কাজে খুশি। অ্যাপটি এখনো গুগল প্লে-স্টোরে দেওয়া হয়নি, তবে শিগগিরই আপলোড করা হবে। এখন এটি হেল্প ওমেন’স বাংলাদেশ-এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

দুর্গাপুরের ইউএনও রাজিব উল আহসান ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, মারুফের উদ্ভাবিত হেল্প ওমেন’স বাংলাদেশ অ্যাপ আমরা এরই মধ্যে বিজ্ঞান মেলায় দেখেছি। অ্যাপটির বিষয়বস্তু সাইবার বুলিং ও ইভটিজিং- যা বর্তমান সময়ের খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। আমরা মারুফকে ধন্যবাদ জানাই এমন একটি বিষয় নিয়ে অ্যাপ তৈরি করার জন্য। তাকে অ্যাপটি সম্পূর্ণ তৈরি করে আনতে বলেছি। এ ব্যাপারে তার পাশে থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করবো।

গাজীপুর কথা
গাজীপুর কথা