শনিবার  ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩,   মাঘ ২১ ১৪২৯,  ১৩ রজব ১৪৪৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

পেঁচাগুল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে পাঠিয়েছেন বন্যপ্রানী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের কর্মকর্তারা।

মালি থেকে বিমানে এল ১৭ পেঁচা, জারিমানা সাড়ে ১৯ লাখ টাকা

প্রকাশিত: ১৪:২৪, ২৫ নভেম্বর ২০২২

মালি থেকে বিমানে এল ১৭ পেঁচা, জারিমানা সাড়ে ১৯ লাখ টাকা

সংগৃহীত ছবি

ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ১৭টি বিদেশি জাতের পেঁচা জব্দ করেছেন কাস্টমস কর্মকর্তারা, যেগুলো অনুমোদন ছাড়া মালি থেকে দেশে আনা হয়েছিল।

বৃহস্পতিবার বিমানবন্দরের আমাদানি কার্গোতে অভিযান চালিয়ে পেঁচাগুলো জব্দ করা হয়। বন্যপ্রাণী কর্মকর্তাদের ভাষ্য, সেগুলো ‘ব্রাউন উইন’ জাতের।

এ ঘটনায় ‘মের্সাস শাহজালাল পেটস অ্যান্ড ফার্মিং’ নামের আমদানিকারক কোম্পানিকে ১৯ লাখ ৫২ হাজার টাকা জরিমানা করে মামলাও দায়ের করেছে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।

বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের পরিদর্শক নিগার সুলতানা বলেন, “আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান মালি থেকে বৈধভাবে ১৫টি হর্ণবিল পাখি এনেছে। তার সঙ্গে অনুমোদন ছাড়াই ১৭টি ব্রাউন উইন জাতের পেঁচা আনে।“

মালি থেকে বিমানে এল ১৭ পেঁচা, জারিমানা সাড়ে ১৯ লাখ টাকা

আমদানিকারকের চালানে প্রতিটি পেঁচার দাম দেখানো হয়েছে ৮৪৪ মার্কিন ডলার। কাস্টমস কর্মকর্তারা সেগুলো জব্দ করার পর বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগে খবর দেয়। পরে রাতেই পেঁচাগুলোকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে পাঠানো হয়।

পরিদর্শক নিগার সুলতানা বলেন, “অবৈধ উপায়ে আনা পশু-পাখি জব্দের অভিযান চালানো এবং বিষয়টি নিয়মিত মনিটরিংয়ের জন্য বিমানবন্দরে বনকর্মকর্তাদের জন্য একটি নির্দিষ্ট কক্ষ থাকা প্রয়োজন। কিন্তু সেখানে তা নেই। সে কারণে স্বাধীনভাবে নিয়মিত মনিটরিং করা সম্ভব হয় না।”