রোববার  ২৬ জুন ২০২২,   আষাঢ় ১২ ১৪২৯

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

রাস্তার ওপর দেয়াল নির্মাণ, ২০ পরিবার অবরুদ্ধ

প্রকাশিত: ১০:৪৮, ২৩ জুন ২০২২

রাস্তার ওপর দেয়াল নির্মাণ, ২০ পরিবার অবরুদ্ধ

রাস্তার ওপর দেয়াল নির্মাণ

গাজীপুর মহানগরের গাছা থানাধীন উত্তর খাইলকুরে দীর্ঘ প্রায় ২০ বছরের পুরনো রাস্তা বন্ধ করে উঁচু দেয়াল নির্মাণ করায় প্রায় ২০ পরিবার অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। এতে স্কুল পড়ুয়া সন্তানদের নিয়ে পরিবারগুলো মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

রাস্তা খুলে দেওয়ার দাবিতে এলাকাবাসী কয়েক দফা প্রতিবাদ সমাবেশও করেছেন। সম্প্রতি স্থানীয় ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত এক প্রতিবাদ সভায় ৭ দিনের মধ্যে রাস্তা খুলে দেওয়ার আল্টিমেটাম দেয়া হয়। অন্যথায় রাস্তার ওপর দেয়াল নির্মাণকারী বাদলকে একঘরে করার হুঁশিয়ারি দেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, উত্তর খাইলকুর জমির উদ্দিন খান সড়কের উত্তর পাশে আল আকসা মসজিদ রোড সংলগ্ন চলাচলের ৬ ফিট প্রশস্ত রাস্তাটির ওপর প্রায় ৬ ফুট উঁচু ওয়াল নির্মাণ করেছেন পাশের বাড়ির মালিক মফিজুল ইসলাম বাদল।

ভুক্তভোগীরা জানান, প্রায় চার বছর আগে রাস্তাটির দক্ষিণ পাশে আড়াই শতক জমি ক্রয় করেন রাস্তার উত্তর পাশের বাড়ির মালিক মফিজুল ইসলাম বাদল। এর পর থেকে রাস্তাটি বন্ধ করে বাড়ির সঙ্গে নতুন ক্রয়কৃত জমি যুক্ত করার চেষ্টা চালিয়ে আসছিলেন বাদল। তিনি দফায় দফায় প্রতিবেশীদের বাধা উপেক্ষা করে এক পর্যায়ে রাস্তাটি বন্ধ করে উঁচু প্রাচীর নির্মাণ করেন।

প্রতিবেশী রেহেনা আক্তার জানান, তাদের চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি বন্ধ করে দেওয়ায় পাশের একটি জমির ওয়াল টপকে বহু কষ্টে তারা চলাচল করছেন। সন্তানদের কোলে অথবা কাঁধে উঠিয়ে পাশের জমির ওয়াল টপকে স্কুলে আনা-নেয়া করছেন। সেখানে আরও ২০ পরিবার অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। অথচ প্রত্যেক বাড়ির মালিকের দলিলেও ওই রাস্তার কথা উল্লেখ রয়েছে।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে মফিজুল ইসলাম বাদল জানান, তিনি ২০০৫ সালে জায়গা কিনে বাড়ি নির্মাণ করেন এবং ২০১৮ সালে বাড়ির বিপরীত পাশে আরও আড়াই শতক জমি কিনেন। বর্তমানে রাস্তার উভয় পাশের জমি তার মালিকানাধীন হওয়ায় রাস্তাটি বন্ধ করে তার বাড়ির সঙ্গে সংযুক্ত করেছেন। ওই রাস্তা ব্যবহারকারী প্রতিবেশীদেরকে সমপরিমাণ জায়গা দেওয়ার জন্যও প্রস্তাব করেছিলেন। কিন্তু প্রতিবেশীরা তাতে রাজি না হওয়ায় তিনি রাস্তা বন্ধ করে জমি সমন্বয় করেছেন।

এ ব্যাপারে গাছা থানার ওসি মো. ইসমাইল হোসেন বলেন, উভয় পক্ষই থানায় অভিযোগ নিয়ে এসেছিলেন। জমিজমা বা রাস্তার বিষয়ে ফয়সালার জন্য আদালত বা সিটি করপোরেশন রয়েছে। এ ব্যাপারে আমাদের কিছু করার নেই।

গাসিক ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিজানুর রহমান বলেন, এর আগেও রাস্তাটি বন্ধ করে দেওয়া হলে আমি সিটি করপোরেশনের লোকজন নিয়ে রাস্তা খুলে দিই। সিটি করপোরেশন ও এলাকাবাসীর বাধা উপেক্ষা করে আবারো রাতারাতি রাস্তা বন্ধ করে উঁচু প্রাচীর নির্মাণ করা হয়েছে। রাস্তা খুলে দেয়ার জন্য বাদলকে ৭ দিনের সময় দেয়া হয়েছে।