ঢাকা,  সোমবার  ২২ জুলাই ২০২৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি

শিশুর অর্ধগলিত মরদেহ মিলল কলাবাগানে

প্রকাশিত: ১৮:১০, ১০ জুলাই ২০২৪

শিশুর অর্ধগলিত মরদেহ মিলল কলাবাগানে

সংগৃহিত ছবি

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কোনাবাড়িতে অপহরণের চারদিন পর বাড়ির পাশের কলাবাগান থেকে সাড়ে ৬ বছরের তামিম নামের এক শিশুর লাশ উদ্ধার করছে পুলিশ। বুধবার (১০ জুলাই) দুপুরে আমবাগ এলাকা থেকে অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কোনাবাড়ি থানার এসআই কামরুজ্জামান লিটন।

নিহত তামিম ময়মনসিংহ জেলার ফুলপুর থানার মাটিজাপুর গ্রামের নাজমুল এর ছেলে। তার বাবা কোনাবাড়ি এলাকায় ভাড়া বাসায় থেকে ব্যবসা করেন।

নিহত স্বজন ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত ৭ জুলাই বিকেলে বাড়ির পাশ থেকে নিখোঁজ হয় শিশু তামিম। পরে এলাকার বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে ওই দিন থানায় একটি সাধারণ ডায়রি (জিডি) করেন স্বজনরা। নিখোঁজের একদিন পর অপরিচিত একটি নম্বর থেকে ফোনে তামিমকে জীবিত ফেরত চাইলে ১০ লাখ টাকা লাগবে বলে দাবি করা হয়।

পরে নিহতের বাবা অপহরণকারীদের মুক্তি পণের দশ লাখ টাকা সঙ্গে নিয়ে তাদের দেওয়া তথ্য মতে ময়মনসিংহের বিভিন্ন এলাকায় যান। কিন্তু পরে তাদের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। বুধবার দুপুরে বাড়ির পাশে কলাবাগানে অর্ধগলিত তামিমের মরদেহ দেখতে পেয়ে থানায় খবর দেন স্থানীয়রা। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

কোনাবাড়ি থানার এসআই কামরুজ্জামান লিটন বলেন, সিসিটিভির একাধিক ফুটেজে ঘটনার দিন বিকেলে তামিমকে বাড়ির পাশ দেখা গেছে। কিছু সময় পর তার খোঁজ মেলেনি। এ ব্যাপারে স্বজনরা জিডি করলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। পরে ভিকটিমের বাবার মোবাইল ফোনে টাকা দাবি করা হয়। বিষয়টি সুবিধাবাদী কোনো দলের কাজ বলে মনে হচ্ছে। এ ব্যাপারে জিডি মূলে মামলা দায়েরসহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।