রোববার  ২৬ জুন ২০২২,   আষাঢ় ১২ ১৪২৯

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

কালিয়াকৈরে ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের দৌরাত্ম্যে অতিষ্ঠ রোগীরা

প্রকাশিত: ১৫:২৪, ২২ মে ২০২২

আপডেট: ২০:৪৭, ২৪ মে ২০২২

কালিয়াকৈরে ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের দৌরাত্ম্যে অতিষ্ঠ রোগীরা

ব্যাগ হাতে প্রতিদিন অর্ধশত কোম্পানির ওষুধ বিক্রয় প্রতিনিধিরা ভিড় করছেন গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মরত চিকিৎসকদের কক্ষের দরজায়। চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের ব্যবস্থাপত্র জোর করে নিয়ে ছবি তুলছেন ও তাদের উত্ত্যক্ত করার অভিযোগ রয়েছে এসব ওষুধ কোম্পানির বিক্রয় প্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে। সকাল হতেই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রতিনিয়তই চোখে পড়ছে এমন দৃশ্য।

রবিবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সকাল থেকেই বিভিন্ন ওষুধ কোম্পানির বিক্রয় প্রতিনিধিরা ব্যাগ হাত চিকিৎসকের কক্ষের সামনে ও ভেতর রোগীদের বসার জায়গা দখল করে বসে থাকছেন। রোগীরা তাদের ব্যবস্থাপত্র নিয়ে চিকিৎসকদের কক্ষে গেলে তাদের হাত থেকে সেসব ব্যবস্থাপত্র জোর করে নিয়ে ছবি তোলা থেকে শুরু করে তাদের কোম্পানির ওষুধ ক্রয়ের জন্য নানাভাবে উত্ত্যক্ত করছেন। উপজলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগ থেকে ওষুধ কিনতে যখন রোগীর স্বজনরা ছুটছেন ঠিক তখনই তাদের পথ আটকে দাঁড়াচ্ছেন কয়েকজন ওষুধ বিক্রয় প্রতিনিধি। রোগীদের হাত থেকে প্রেসক্রিপশন ছিনিয়ে মোবাইলে ছবি তোলেন তারা। ডাক্তার কোন কোম্পানির ওষুধ লিখছেন এটা দেখার জন্যই তারা এমনটি করছেন।

এদিকে অনেক চিকিৎসকদের সঙ্গে গোপন যোগসাজশে তাদের কোম্পানির ওষুধের নামে প্রেসক্রিপশ করছেন। এতে অনেক রোগী বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সুফিয়া বেগম নামে এক রোগী অভিযোগ করেন, সকাল ১০টা বাজে, তিনি চিকিৎসকের কক্ষের দরজায় বসে আছেন। কিন্তু বিভিন্ন কোম্পানির ওষুধ বিক্রয় প্রতিনিধিদের অবাধ আসা যাওয়ায় ডাক্তার ব্যস্ত তাদের নিয়ে। বাহিরে রোগীর ভিড় বাড়তেই থাকে।

আসাদুজ্জামান আসাদ জানান, ছেলেকে ভর্তি করিয়েছি। ডাক্তার ওষুধের প্রেসক্রিপশন দিয়েছে। সেটি নিয়ে ওষুধের দোকানে যাবার আগেই চার জন মিলে ঘেরাও করেছে। প্রেসক্রিপশন ছিনিয়ে নিয়ে কিসব ওষুধের নাম সেখানে লিখে দিচ্ছেন।

কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডা. আল বেলাল এ বিষয়ে বলেন, কিছু ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিরা রোগীদের হয়রানি করছে এটা শুনেছি। আমরা খুব তাড়াতাড়ি এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।

কালিয়াকৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তাজওয়ার আকরাম সাকাপি ইবনে সাজ্জাদ জানান, ব্যাপারটি আমরা দ্রুতই তদন্ত করে দেখব। তাছাড়া কিছু প্রতারক চক্র হাসপাতালের আশপাশে ঘুরে বেড়ায়। এদের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গাজীপুর কথা