বৃহস্পতিবার  ১১ আগস্ট ২০২২,   শ্রাবণ ২৬ ১৪২৯,  ১৩ মুহররম ১৪৪৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

বিএনপি হরতাল ডাকতে পারে, রক্তারক্তি ভাঙচুর করলে ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত: ২২:০৭, ৫ আগস্ট ২০২২

বিএনপি হরতাল ডাকতে পারে, রক্তারক্তি ভাঙচুর করলে ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল

বিএনপি হরতাল ডেকে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি ও জানমালের ক্ষতির চেষ্টা করলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ব্যবস্থা নেবে বলে হঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

তিনি শুক্রবার বিকালে নগরীর আন্দরকিল্লায় নগর ভবন চত্বরে জাতীয় শোক দিবসের ছয় দিনব্যাপী কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ হুঁশিয়ারি দেন। 

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর ও জেলা ইউনিট কমান্ডের যৌথ এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

বিএনপির আন্দোলনে নামার ঘোষণা নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি হরতাল ডাকতে পারে, ধর্মঘট ডাকতে পারে। তাতে আমাদের আপত্তি নেই। কিন্তু অহেতুক যদি যানবাহন বন্ধ করে, আমাদের জনসাধারণের কোনো অসুবিধা সৃষ্টি করে, জানমালের সমস্যা করে কিংবা কোনো রক্তারক্তি-ভাঙচুর করে, তাহলে আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী তাদের কাজটি সঠিকভাবে করবে।’

দেশে বিদ্যুতের সংকটকে বৈশ্বিক উল্লেখ করে এ সময় আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘তেল-গ্যাস সারাবিশ্বের সমস্যা। রাশিয়া এবং ইউক্রেনের যুদ্ধের কারণে সব পণ্যের বাজার টালমাটাল। বাংলাদেশে ডিজেলভিত্তিক, ফার্নেস অয়েলভিত্তিক যেসব বিদ্যুৎকেন্দ্র আছে সেগুলোতে এর প্রভাব পড়েছে। ডিজেল-ফার্নেস অয়েলের দাম বেড়ে যাচ্ছে। সেজন্যই আমরা লোডশেডিং করছি। তার মানে এই নয় যে, আমাদের সক্ষমতা নেই। আমাদের পূর্ণ সক্ষমতা আছে। পরিস্থিতি একটু উন্নত হলেই আমরা আগের পর্যায়ে চলে যাব। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অনেক দূরদর্শিতা নিয়ে শুধু তেলভিত্তিক নয়, গ্যাসভিত্তিক, কয়লাভিত্তিক এবং সোলারভিত্তিক, এখন নিউক্লিয়ারভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র পর্যন্ত করছেন। কাজেই কোনো সমস্যা হবে বলে আমরা মনে করি না।’

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহাগরের কমান্ডার মোজাফফর আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধবিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. শিরীন আক্তার, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার কৃষ্ণপদ রায়, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মমিনুর রহমান, চট্টগ্রাম পুলিশ সুপার রাশেদুল হক ও মুক্তিযোদ্ধারা বক্তব্য দেন।