শনিবার  ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩,   মাঘ ২১ ১৪২৯,  ১৩ রজব ১৪৪৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

গরুর পেটে মিলল ৬৫ কেজি প্লাস্টিক, ধাতব বর্জ্য!

প্রকাশিত: ১৩:৪৬, ৫ ডিসেম্বর ২০২২

গরুর পেটে মিলল ৬৫ কেজি প্লাস্টিক, ধাতব বর্জ্য!

গরুর পেটে মিলল ৬৫ কেজি প্লাস্টিক, ধাতব বর্জ্য!

বিশ্বে প্লাস্টিক বর্জ্য বেড়েই চলেছে। মানুষ যত্রতত্র ফেলছে প্লাস্টিক। ফলে এর প্রভাব পড়ছে বিভিন্ন প্রাণির ওপর। অনেক প্রাণি এটি খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করায় মারা যাচ্ছে অকালেই। এবার ভারতের একটি গরু প্লাস্টিক খেয়ে মৃত্যুর হাত থেকে বেঁচে ফিরেছে। অস্ত্রোপচার করে গরুটির পেট থেকে ৬৫ কেজি প্লাস্টিক এবং ধাতব বর্জ্য বের করা হয়েছে।

সম্প্রতি ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের তামিলনাড়ুর মাদুরাইতে।

পরমেশ্বমরম নামে এক ব্যক্তি ৬ বছর ধরে গরুটি পালন করছিলেন। কিছু দিন আগে গরুটিকে হাসপাতালে নেয়া হয় চিকিৎসার জন্য।

তিনি চিকিৎসককে জানান, সদ্যই মা হয়েছে গরুটি। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরেই এটি কোনো রকম খাবার বা পানি খাচ্ছে না। চিকিৎসকরা তখন গরুর বেশ কয়েকটি পরীক্ষা করেন। তখনই পাকস্থলীতে অদ্ভুত কিছু জিনিস নজরে আসে চিকিৎসকদের। তার পরই তারা অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন।

অস্ত্রোপচার করে ওই গরুর পেট থেকে ৬৫ কেজি প্লাস্টিক ও ধাতব বর্জ্য উদ্ধার করেন চিকিৎসকরা। কীভাবে এতো প্লাস্টিক এবং ধাতব বর্জ্য পাকস্থলিতে জমে থাকার পর গরুটি বেঁচে ছিল তা ভেবেই বিস্ময় প্রকাশ করেছেন চিকিৎসকরা।

সংবাদমাধ্যমকে চিকিৎসকরা জানান, পেটের ভেতর বর্জ্যগুলো দলা পাকানো অবস্থায় ছিল। একটা বড় মণ্ড তৈরি হয়েছিল পাকস্থলীর ভেতর। আর সেগুলোর বিষক্রিয়ায় গরুর শারীরিক অবস্থা ক্রমেই খারাপ হচ্ছিল। আর কিছু দিন এই অবস্থায় থাকলে মৃত্যুও হতে পারত গরুটির।

চিকিৎসকরা আরো জানান, পুরো অস্ত্রোপচারটি করতে তিন ঘণ্টা সময় লেগেছে। এরপর আরো ৭২ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রাখা হয় গরুটিকে। তারপর থেকে প্রাণিটি আবার ঠিকমতো খাওয়া-দাওয়া করছে বলে জানিয়েছেন তারা।

এ ঘটনায় পশুর মালিকদের অনুরোধ করেছেন পশুগুলোকে নিশ্চিন্তে রাস্তায় ছেড়ে না দিয়ে তাদের ওপর নজর রাখতে। নয়ত, এই ধরনের ঘটনা আরো ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন চিকিৎসকরা।

সূত্র: নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস