বুধবার  ০৫ অক্টোবর ২০২২,   আশ্বিন ১৯ ১৪২৯,  ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

হাতি সম্পর্কে অজানা কিছু তথ্য

প্রকাশিত: ১২:১৫, ১২ আগস্ট ২০২২

হাতি সম্পর্কে অজানা কিছু তথ্য

ফাইল ছবি

স্তন্যপায়ী প্রাণীদের মধ্যে হাতি অন্যতম আত্মসচেতন প্রাণী। হাতিদের সমাজ মাতৃপ্রধান। আট থকে পনেরো বছর বয়স হলে পুরুষ হাতিরা পরিবার ত্যাগ করে সঙ্গীর সন্ধ্যানে বের হয়। হাতি সম্পর্কে আরো কিছু মজার তথ্য জেনে নিন।

১. হাতি দলবদ্ধ প্রাণী। হাতির দলপতি হয় সব থেকে শক্তিশালী দাঁতাল। দলের কেন্দ্রে বাচ্চাদের ঘিরে থাকে মা-দাদীমারা। বাচ্চারা বড় হলে দলের বাইরের সারিতে স্থান নেয়। দলছুটও হতে থাকে। পরিণত দাঁতালরা নিজেদের দল গঠনের চেষ্টা করে। হাতি আওয়াজের মাধ্যমে যোগাযোগ স্থাপন করে। একটি হাতি শব্দ করলে অন্য হাতি এক মাইল দূর থেকেও শুনতে পায়। হাতি আনন্দ প্রকাশের জন্য কান নাড়ায়।

২. হাতির সামাজিক কাঠামো অন্য জীবজন্তুর থেকে আলাদা। একটি মহিলা হাতির নেতৃত্বে ২৫ টি হাতি একটি পরিবারের মত এক সঙ্গে বসবাস করে, একে হার্ড বা পশুপাল বলে। এদের পরিবারে বয়স্ক হাতির প্রভাব অনেক বেশি থাকে।

৩. পুরুষ হাতি ৮-১৫ বছর বয়সের মধ্যে পরিবার ত্যাগ করে বা অন্যভাবে বলা যায় যে, হাতি কিশোর বয়সে নিজ পরিবার ত্যাগ করে সঙ্গীর সন্ধানে অন্য ছোট পরিবারের সঙ্গে বসবাস করতে শুরু করে।

৪. হাতির ৪ ঘন্টা ঘুমালেই হয়। তারা বেশিরভাগ সময় দাড়িয়েই ঘুমায়। গভীর ঘুমের জন্য হাতি এক পাশে ফিরে শোয় এবং অনেক জোরে নাক ডাকে।

৫. স্থলজ জীবজন্তুর মধ্যে হাতির মস্তিস্ক সবচেয়ে বড়। হাতির মস্তিস্কের ওজন পাঁচ কিলোগ্রাম। হাতির সুখ, দুঃখ, হাস্যরস, সহানুভূতি, সহযোগিতা, আত্মসচেতনতা শেখার ক্ষমতা আছে।

৬. হাতি তাদের মৃতদের সম্মান দেয় এবং মৃতদের জন্য আচার-অনুষ্ঠান করে।

৭.  এদের আয়ু প্রায় ৭০ বছর হয়ে থাকে। হাতির জীবদ্দশায় ছয়বার কষদাঁত বের  হয়। শেষ বারের দাঁত ক্ষয়ে যাবার পর অনাহারে হাতির মৃত্যু অনিবার্য।