বৃহস্পতিবার  ১১ আগস্ট ২০২২,   শ্রাবণ ২৬ ১৪২৯,  ১৩ মুহররম ১৪৪৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

নতুন জীবন পেলো অসমাপ্ত ৩০ প্রকল্প

প্রকাশিত: ২৩:৩৪, ২৫ জুন ২০২২

নতুন জীবন পেলো অসমাপ্ত ৩০ প্রকল্প

এডিপি

অসমাপ্ত ৩০ প্রকল্প নতুন জীবন পেল আবার। ৬ থেকে ৯ বছর ধরে চলমান প্রকল্প, চলতি বছরের জুনেই সমাপ্তির জন্য নির্ধারিত ছিল। সমাপ্তির ব্যর্থতায় আবার এক বছর সময় দেয়া হলো। শেষ হয়নি ৯ বছরে ন্যাশনাল হাউজহোল্ড ডাটাবেজ প্রকল্প, ৮ বছরেও বহুতল ভবন বিশিষ্ট পল্লী জনপদ নির্মাণ, উত্তরা লেক আট বছরেও উন্নয়ন করতে পারেনি। বছরের বছর চলে উন্নয়ন প্রকল্পগুলো। নির্ধারিত মেয়াদের বালাই নাই। আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে (এডিপি) যুক্ত করার জন্য বলছে পরিকল্পনা কমিশনের কার্যক্রম বিভাগ। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ও সচিবদের চিঠি দেয়া হয়েছে গত ১৬ জুন পরিকল্পনা কমিশনের কার্যক্রম বিভাগ থেকে।

সকল সিনিয়র সচিব ও সচিবদের দেয়া কার্যক্রম বিভাগের চিঠিতে বলা হয়েছে, চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের সংশোধিত এডিপিতে ৩০টি প্রকল্প ৩০ জুন সমাপ্ত করার জন্য নির্ধারিত ছিল। কিন্তু এই প্রকল্পগুলোর মেয়াদ বৃদ্ধির লক্ষ্যে আগামী ২০২২-২৩ অর্থবছরের এডিপিতে বরাদ্দসহ অন্তর্ভুক্ত করার জন্য অনুমোদন করা হলো। সর্বশেষ অনুমোদিত প্রাক্কলিত ব্যয়ের মধ্যে সীমাবদ্ধ রেখেই আগামী অর্থবছরে ওই ৩০ প্রকল্প আবশ্যিকভাবে সমাপ্ত করতে হবে।

৬ থেকে ৯ বছর ধরে চলমান প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে ৭২৭ কোটি ৩৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১৩ সালে শুরু হওয়া ন্যাশনাল হাউজহোল্ড ডাটাবেজ প্রকল্প, ২১৪ কোটি ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১৪ সালে শুরু হওয়া গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর জীবন মান উন্নয়ন এবং আধুনিক নাগরিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত সমবায় ভিত্তিক বহুতল ভবন বিশিষ্ট পল্লী জনপদ নির্মাণ, ৭৩ কোটি ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১৪ সালে শুরু উত্তরা লেক উন্নয়ন, ২ হাজার ৯৩১ কোটি ৩৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১৫ সালে নেয়া আশুগঞ্জ ৪০০ মেগাওয়াট কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্ল্যান্ট (পূর্ব), ৭৪ কোটি ৬৪ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১৬ সালে শুরু জাতীয় বেতার ভবনে আধুনিক ও ডিজিটাল সম্প্রচার যন্ত্রপাতি স্থাপন। আট বছর ধরে চলছে সোনাইমুরি, কালিগঞ্জ, আড়াইহাজার ও মঠবাড়িয়া উপজেলায় ট্রেনিং সেন্টার ও হোস্টেল নির্মাণকাজ। যা আগামী জুনে শেষ হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এই সেন্টার নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে সাড়ে ৫২ কোটি টাকা।

৩০ প্রকল্পের মধ্যে উল্লেখযোগ্য প্রকল্পগুলো হচ্ছে- ৩ হাজার ৯৫ কোটি টাকা ব্যয়ের আশ্রয়ন-৩ প্রকল্প। যেটি নোয়াখালীর হাতিয়া থানার চরঈশ্বরপুর ভাষানচরে বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিকদের আবাসন এবং দ্বীপের নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় অবকাঠামো উন্নয়ন (প্রথম সংশোধিত), ৬ হাজার ২৭৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে নেয়া রাজশাহী, রংপুর, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের শতভাগ পল্লী বিদ্যুতায়ন নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ এবং ৬ হাজার ৬৪৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ঢাকা, ময়মনসিংহ চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের শতভাগ পল্লী বিদ্যুতায়ন নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণ প্রকল্প, এক হাজার ৫৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে ২০১৮ সালের জুলাইতে নেয়া গাজীপুর সিটি করপোরেশনের এক থেকে ৫নং জোনের অভ্যন্তরীণ রাস্তা, নর্দমা ও ফুটপাথ নির্মাণ (প্রথম সংশোধিত) প্রকল্প ও ৭০০ কোটি ৬০ লাখ টাকা ব্যয়ে ২০১৮ সালে নেয়া গাজীপুর সিটির ড্রেন ও রাস্তা উন্নয়ন।

এ ছাড়া ৪৯২ কোটি টাকা ব্যয়ে ২০১৭ নালের জানুয়ারিতে নেয়া সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমান, বন্দরের রানওয়ে ও টেক্সিওয়ের শক্তি বৃদ্ধিকরণ, ৪৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ২০১৯ সালের মার্চে নেয়া অস্থায়ী ভিত্তিতে রাসায়নিক দ্রব্য সংরক্ষণের জন্য গুদাম নির্মাণ, ১৩২ কোটি টাকা খরচে নেয়া উত্তরাঞ্চলের অতিদরিদ্রদের কর্মসংস্থান নিশ্চিতকরণ কর্মসূচি-২, প্রায় ৭৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ২০১৭ সালের জুলাইতে নেয়া মাদারীপুরে ন্যাশনাল মেরিটাইম ইন্সটিটিউট স্থাপন, এক হাজার ৬৮ কোটি টাকা ব্যয়ে ২০১৭ সালে নেয়া মিরসরাইতে ১৫ মেগাওয়াট ডুয়েল ফুয়েল বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন প্রকল্প।

দুর্নীতি ও অনিয়ম রোধে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) ২০১৮ সালের প্রস্তাবনায় বলা হয়েছে, নির্ধারিত সময়ে প্রকল্পের কাজ শেষ না করে অস্বাভাবিকভাবে প্রকল্পের সময় ও ব্যয় বৃদ্ধির কারণ এবং করণীয় নির্ধারণ করতে হবে। প্রকল্প নির্বাচন করার সময় প্রস্তাবনা প্রণয়ন এবং টেকনিক্যাল ও ফিন্যান্সিয়াল মূল্যায়নের ক্ষেত্রে কারিগরি জ্ঞানসম্পন্ন নির্ভরযোগ্য বিশেষজ্ঞ অন্তর্ভুক্ত করা যেতে পারে। প্রকল্প নির্বাচন করার ক্ষেত্রে প্রকল্পের যথার্থতা এবং উপযোগিতা রয়েছে কিনা তা স্থানীয় ব্যবহারকারীদের সাথে আলোচনার মাধ্যমে কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নিশ্চিত করা। দরপত্র ও চুক্তিপত্রে বর্ণিত ডিজাইন ও স্পেসিফিকেশন অনুযায়ী কাজ সম্পন্ন নিশ্চিত করতে হবে।