শনিবার  ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩,   মাঘ ২১ ১৪২৯,  ১৩ রজব ১৪৪৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

‘কেউ আমার লাশ পাইলে ফোন দিয়েন বাসায়’

প্রকাশিত: ১৬:৫০, ৪ ডিসেম্বর ২০২২

‘কেউ আমার লাশ পাইলে ফোন দিয়েন বাসায়’

শ্রী শান্ত রায় ও উদ্ধারকৃত চিরকুট

নীলফামারীর সৈয়দপুরে রেললাইনে দ্বিখন্ডিত অবস্থায় শ্রী শান্ত রায় (১৭) নামের এক শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মরদেহটি রোববার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে সৈয়দপুর ওয়াবদা মোড় রেলঘুন্টি এলাকায় থেকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি চিরকুট পাওয়া গেছে।

শান্ত সৈয়দপুর উপজেলার সোঁনাখুলি বোতলাগাড়ি গ্রামের শ্রী সাগর রায়ের ছেলে। সে সৈয়দপুর বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, দুপুরে রাজশাহী- চিলাহাটি রুটের চিলাহাটিগামী তিতুমীর এক্সপ্রেস ট্রেনে ঘটনাটি ঘটে। শান্ত সবার কাছে হাসিখুশি ছেলে হিসেবে পরিচিত ছিল। আগামী বছর এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করার কথা ছিল তার। আজ সকালে কাউকে কিছু না বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। দুপুরে রেললাইনে দ্বিখণ্ডিত অবস্থায় তার মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন স্থানীয়রা। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে৷ এ সময় তার মরদেহের পাশে একটি চিরকুট পাওয়া যায়। চিরকুটে লেখা ছিল ‘কেউ আমার লাশ পাইলে ফোন দিয়েন বাসায়’। ওই চিরকুটটিতে তার বাবার মোবাইল নাম্বারও দেওয়া রয়েছে। 

সৈয়দপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিউল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থলে একটি চিরকুট পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছে সে আত্মহত্যা করেছে। 

তিনি আরও বলেন, আমি স্থানীয় লোকজন ও পরিবারের সঙ্গে কথা বলে ঘটনার কারণ জানার চেষ্টা করেছি। তবে আত্মহত্যার করার মতো কোনো বিষয় ঘটেনি বলে তারা জানিয়েছেন। সে সব সময় হাসিখুশি ছিল। আগামী বছর এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করত। আবার স্কুলের এসএসসি মডেল টেস্ট পরীক্ষায়ও ৩য় স্থান লাভ করে। কী কারণে শান্ত আত্মহত্যা করল তা এখনো জানা যায়নি। কেউ বলতে পারছে না।