ঢাকা,  সোমবার  ২২ জুলাই ২০২৪

Gazipur Kotha | গাজীপুর কথা

কোটার পূর্ণবাস্তবায়নের দাবি মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের

প্রকাশিত: ১৮:১৮, ১০ জুলাই ২০২৪

কোটার পূর্ণবাস্তবায়নের দাবি মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের

সংগৃহিত ছবি

কোটার পূর্ণবাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের খাগড়াছড়ি দীঘিনালা উপজেলার সদস্যরা। বুধবার (১০ জুলাই) বেলা ১১টায় দীঘিনালা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের আয়োজনে এক সমাবেশে বক্তারা এ দাবি জানান।

কোটাকে ইস্যু করে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের বিরুদ্ধে কটাক্ষ, অবমাননা, অপমান এবং দেশব্যাপী নৈরাজ্যের প্রতিবাদে উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মো. এরশাদ বলেন, ৩০ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা কোটা নিয়ে মিথ্যাচার করা হচ্ছে। ৩০ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা কোটা কখনোই বাস্তবায়ন হয়নি। প্রকৃতপক্ষে বাস্তবায়ন হয় ৮ শতাংশ কোটা, যা বৈষম্য। আমি ৩০ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা কোটার পূর্ণবাস্তবায়নের দাবি জানাচ্ছি।

সমাবেশে বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মো. কামরুজ্জামান বলেন, প্রশ্নফাঁস করে মেধাবী দাবি করা কিছু দেশবিরোধী চক্র দেশকে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে মুক্তিযোদ্ধা কোটার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। আমরা ৩০ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা কোটা বাস্তবায়ন চাই। আমাদের অধিকার অব্যাহত চাই প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম।

বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মো. আমজাদ হোসেন বলেন, অবিলম্বে বিপথগামী ছাত্রদের আলোচনার মাধ্যমে সরকার যেন এর সুষ্ঠু সুরাহা করেন। আমরা আর অপমান সহ্য করব না। মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সুরক্ষা আইন পাস এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা মুক্তিযোদ্ধাদের সাংবিধানিক স্বীকৃতির দাবি জানান তিনি।

দীঘিনালা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড কমিটির সভাপতি মো. এরশাদের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, দীঘিনালা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. কামরুজ্জামান, সহসভাপতি মো. আমজাদ হোসেন, দপ্তর সম্পাদক মো. মহাসিন মিয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুল মোতালেব সুফি, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. গিয়াস উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবু সৈয়দ প্রমুখ।

এ ছাড়াও বিক্ষোভ সমাবেশে উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা, বীর মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী, বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান এবং বীর মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনীরা উপস্থিত ছিলেন।