ব্রেকিং:
"গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে সভাপতি আ ক ম মোজাম্মেল হক, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন সবুজ।" "বিশিষ্ট সাংবাদিক, ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো’ গানের রচয়িতা আবদুল গাফফার চৌধুরী আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও স্পিকারের শোক।"
  • বৃহস্পতিবার   ১৯ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৫ ১৪২৯

  • || ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩

গাজীপুর কথা

ফুটবলে উন্নত প্রশিক্ষণের জন্য পর্তুগাল যাচ্ছে চুয়াডাঙ্গার বিদিশা

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ১২ মে ২০২২  

শত শত প্রমিলা ফুটবলারদের পিছনে ফেলে উন্নত প্রশিক্ষণের জন্য পর্তুগাল যাচ্ছেন বিদিশা রাণী। 

চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা পৌরসভার স্টেশন পাড়ার হতদরিদ্র বেদ পরিবারে মেয়ে এবং কৃতি ফুটবলার বিদিশা। ফুটবলের উচ্চতর প্রশিক্ষণ নিতে আগামী জুলাই মাসে যাবে পর্তুগালে। পর্তুগালে ফুটবল প্রশিক্ষণের এই সুযোগ পাওয়ায় বিদিশার বাড়িতে এখন আনন্দ বিরাজ করছে। সেই সাথে বিদিশার সহপাঠী, কোচ, স্কুল শিক্ষক এবং এলাকাবাসীও বিদিশার সাফল্যে বেশ খুশি। 
তবে, এই খুশির আকাশে কষ্ট ও নানা সমস্যা এবং বাধার কালো মেঘ কখনো কখনো বিদিশাকে বেশ ধাক্কা সামাল দিতে হয়েছে। তার খেলাধুলায় আসা যাওয়ার পথে বহুজন তাকে নিয়ে কটুক্তি, তাচ্ছিল্য ও তামাসাও করেছে। কিন্তু হার না মানা বিদিশা সবকিছু উপেক্ষা করে সামনের দিকেই এগিয়ে গিয়েছে বলে আজ তার সাফল্যের চাঁদ উকি দিয়েছে।

বাবা রাজকুমার বেদ হারদি কলেজের সামান্য বেতনের কর্মচারী। তার অভাবের সংসারের এক সময় হাল ধরবে ছোট মেয়ে বিদিশা তাই তাকে নিয়ে পিতার স্বপ্ন ছিলো বিদিশাকে খেলাধুলার সনদ কাজে লাগিয়ে পুলিশের চাকরিতে লাগাবে। কিন্ত প্রাইমারি স্কুলে পড়াকালীন সময়ে বিদিশার ক্রীড়া নৈপুণ্য বাবার স্বপ্নের মোড় ঘুরিয়ে দেয়। সে আলমডাঙ্গা পাইলট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের হয়ে ২০১৫ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত তিন তিন বার বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা গোল্ডকাপ ফুটবলের শিরোপা জিতে দেশব্যাপী আলোচনায় চলে আসে। 
বিদিশা জানায় তার এই সাফল্যের আঙিনায় জিনারা সব সময় শ্রম দিয়েছেন তাদের মধ্যে বাবা রাজ কুমারের পরেই তার আলমডাঙ্গা মডেল সরকারি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হারেছ উদ্দীনের অনুপ্রেরণা এবং চুয়াডাঙ্গা মাহাতাবউদ্দিন ফুটবল একাডেমির কোচ মিলন নিশ্বাসের চৌকস এবং বুনিয়াদী প্রশিক্ষণেই এই গৌরবময় সাফল্য বিদিশার জীবনের গল্পের এক নতুন অধ্যায়ের সূচনা হতে যাচ্ছে।

পর্তুগালে প্রশিক্ষণের সুযোগ পেতেও বিদিশাকে বেশ ঘাম ঝরাতে হয়েছে। গত বছর ২০২১ সালের বঙ্গমাতা গোল্ডকাপে প্রথমে জেলা পরে বিভাগে ও শেষে জাতীয় পর্যায়ে সেরা ৪০ থেকে ১৬ খেলোয়াড়কে মনোনীত করা হয়। সর্বশেষ সেরা ১১ এর চূড়ান্ত প্রশিক্ষনার্থী হিসাবে তালিকায় ৮ নম্বরে জায়গা করে নেয় এই বেদ কন্যা। স্কুল জীবনে অসংখ্য পুরস্কারে ভুষিত হয়েছে সে।

বর্তমানে বিদিশা রাণী বেদ আলমডাঙ্গা পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী আসন্ন ২০২২ সালের এস এস সি পরীক্ষার্থী। বিদিশা রাণী পড়াশোনার পাশাপাশি দেশের জাতীয় দলের ফুটবলার হওয়ার স্বপ্ন লালন করছে। 
চুয়াডাঙ্গা মাহাতাব উদ্দিন বিশ্বাস ফুটবল একাডেমির কোচ মিলন বিশ্বাস বলেন, চুয়াডাঙ্গার সিনিয়র ফুটবলাররা জাতীয় দলে ঢাকার ক্লাবে খেলছে। অনেক দিন ধরে ফুটবলে দুর্দিন যাচ্ছিলো, বিদিশার দিয়ে তা পূরণ করা সম্ভব হবে।

এদিকে চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি অধ্যাপক মাহাবুবুল হক সেলিম বলেন, বঙ্গমাতা টুর্নামেন্ট গোল্ডকাপ অনূর্ধ্ব-১৭ যাচাই বাছাই করে সর্বশেষ ১৬ জনের মধ্যে সে চান্স পেয়েছে। যে ১১ জন পর্তুগালে যাচ্ছে তার মধ্যে বিদিশার অবস্থান ৮ম। সে পর্তুগালে খেলতে যাবে। সেখানে সে দুই মাসের প্রশিক্ষণ নিয়ে বাংলাদেশে ফিরে আসবে। আমি তার সাফল্য কামনা করি। সে জাতীয় দলে খেলবে এবং চুয়াডাঙ্গার সুনাম অক্ষুন্ন রাখবে বলে আমি আশা করি।

গাজীপুর কথা
গাজীপুর কথা