ব্রেকিং:
করোনা আপডেট বাংলাদেশ ৩০/১০/২০২০: করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১৯ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৯০৫, নতুন ১৬০৪ জনসহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৪০৬৩৬৪ জন। নতুন ১৪২২ জনসহ মোট সুস্থ ৩২২৭০৩ জন। একদিনে ১৪১৪১টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ২৩২৪৭৩০ টি।
  • শনিবার   ৩১ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ১৫ ১৪২৭

  • || ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

সর্বশেষ:
করোনায় সশস্ত্রবাহিনী দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে: প্রধানমন্ত্রী আজ পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) ৪১শ কোটি ডলার ছাড়াল রিজার্ভ শিগগিরই ঢাকায় আসছেন এরদোয়ান ৮ ব্যক্তি ১ প্রতিষ্ঠানকে স্বাধীনতা পুরস্কার দিলেন প্রধানমন্ত্রী সব জেলায় ১০ নভেম্বর থেকে ই-পাসপোর্ট ১ নভেম্বর থেকে খুলে দেয়া হচ্ছে গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়লো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি
৩০৮

১০ লেনের সর্বাধুনিক এক্সপ্রেসওয়ে হচ্ছে ঢাকা-জয়দেবপুর-ময়মনসিংহ রোড

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ১ অক্টোবর ২০২০  

দেশে প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক মানের ১০ লেনের সর্বাধুনিক এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। তিন হাজার ৩৫৩ কোটি টাকা ব্যয়ে চার লেনের ঢাকা-জয়দেবপুর-ময়মনসিংহ সড়কটিকে এক্সপ্রেসওয়েতে উন্নীত করার জন্য একটি প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপের (পিপিপি) ভিত্তিতে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠান কেরিয়া ওভারসিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট করপোরেশেন এ নির্মাণকাজ বাস্তবায়ন করবে।
বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে কমিটির ভার্চুয়াল সভায় এ প্রস্তাবের অনুমোদন দেয়া হয়। সভায় কমিটির সদস্য, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিব, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা যুক্ত ছিলেন।

বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের ‘ইমপ্রুভমেন্ট ঢাকা জয়দেবপুর ময়মনসিংহ রোড ইনটু এক্সপ্রেসওয়ে উইথ সার্ভিস লেইন বোথ সাইড’ বাস্তবায়নে অনুমোদন দেয়া হয়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠান কেরিয়া ওভারসিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট করপোরেশেনে এ রাস্তা নির্মাণ করবে।

তিনি বলেন, এটা চার লেন রাস্তা ছিল, এ রাস্তাকে প্রশস্ত করাসহ আরও কিছু কাজ করা হবে। এটা বাস্তবায়নের জন্য কোরিয়ান একটা ভালো কোম্পানি পেয়েছি। তারা এ চার লেন রাস্তাটিকে আরও প্রশস্ত করবে। সরকার এবং কোরিয়ান কোম্পানি কেরিয়া ওভারসিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট করপোরেশন একত্রে এ কাজটি করবে।

অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, কাজটির জন্য প্রাথমিকভাবে ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে তিন হাজার ৩৫৩ কোটি টাকা। এ টাকা পুরোটাই কোরিয়ান কোম্পানি দেবে। সরকারকে এক্ষেত্রে টাকা দিতে হবে না। কারণ এখন যে চার লেন রাস্তা রয়েছে সেটি সরকার নিজে করেছে। রাস্তাটিও চার লেনের সাথে সম্পৃক্ত হবে। সুতরাং সরকারকে আর টাকা খরচ করতে হবে না।

তিনি বলেন, এ কাজের জন্য যে পুনর্বাসন করতে হবে, তার জন্য ২৮০ কোটি টাকা আর ইউটিলিটি স্থানান্তরের জন্য ১০০ কোটি টাকা সরকার বহন করবে। বাকি তিন হাজার ৩৫৩ কোটি টাকা কোরিয়ান কোম্পানিটি বহন করবে। এ কাজ বাস্তবায়নের জন্য অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

সড়ক ও জনপথ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, এ রাস্তাটিকে দেশে প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক মানের ১০ লেনের সর্বাধুনিক এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। চার লেনের জয়দেবপুর-ময়মনসিংহ পর্যন্ত ৮৭ দশমিক ১৮ কিলোমিটার সড়কটি এক্সপ্রেসওয়েতে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে দেড় ঘণ্টার মধ্যে ঢাকা থেকে ময়মনসিংহ পৌঁছানো সম্ভব হবে।

সূত্র জানায়, বিদ্যমান চার লেনবিশিষ্ট জয়দেবপুর-ময়মনসিংহের ৮৭ দশমিক ১৮ কিলোমিটার সড়কটি এক্সপ্রেসওয়ের মাধ্যমে ১০ লেনে উন্নীত করা হচ্ছে। বিদ্যমান চার লেনের পাশাপাশি ১০ ফুট প্রশস্ত দু’পাশে ব্যারিয়ার দিয়ে ইমার্জেন্সি লেন নির্মাণ করা হবে, যা দিয়ে শুধু অ্যাম্বুলেন্স, নিরাপত্তা গাড়ি, ভিআইপিসহ যে কোনো জরুরি প্রয়োজনীয় গাড়ি চলাচল করবে।

এরপর আরও ১৮ থেকে ২৪ ফুট করে স্বল্প গতির যান চলাচলের জন্য আলাদা দুটি লেন করা হবে। একপাশে পাঁচটি সড়ক লেনসহ দুপাশে ১০ লেনের সড়ক নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে। প্রতি ২-৩ কিলোমিটার পর আন্ডারপাস ইউটার্ন নির্মিত হবে। দুপাশের অন্য সড়ক থেকে এক্সপ্রেসওয়ে সড়কে উঠতে ও বের হতে ইন্টারচেঞ্জ থাকবে- যাতে আন্ডারপাস ও ওভারপাস সিস্টেমে কোনো গাড়ি মুখোমুখি হবে না।

গাজীপুর কথা
নগর জুড়ে বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর