ব্রেকিং:
করোনা আপডেট বাংলাদেশ ০৪/আগস্ট/২০২০ : করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৫০ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩২৩৪, নতুন ১৯১৮ জনসহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২৪৪০২০, নতুন ১৯৫৫ জনসহ মোট সুস্থ ১৩৯৮৬০ জন, একদিনে ৭৭১২ টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ১২০১২৫৬ টি।
  • বুধবার   ০৫ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২১ ১৪২৭

  • || ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

সর্বশেষ:
বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ পুত্র, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক এবং ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শহীদ শেখ কামালের ৭১তম জন্মবার্ষিকী আজ সিনহা রাশেদের মাকে প্রধানমন্ত্রীর ফোন, বিচারের আশ্বাস মানুষ যেন উন্নত জীবন পায় সেটাই সরকারের লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী আমরা সফলতার সঙ্গে করোনা মোকাবিলা করেছি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী গাজীপুরে গত ২৪ ঘন্টায় ৮ জনের করোনা শনাক্ত জুলাইয়ে রপ্তানি আয় ৩৯২ কোটি ডলার অতীতের রেকর্ড ভেঙে এক মাসে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এলো দেশে ৬৫ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শুরু হচ্ছে মিড-ডে মিল কার্যক্রম ঈদের ছুটি শেষে ঢাকায় ফিরছে মানুষ গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ গাজীপুরে কমতে শুরু করেছে বন্যার পানি
২২৪

সোনায় মোড়ানো পাঁচ তারকা হোটেল!

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ৫ জুলাই ২০২০  

অবাক হওয়ার মতো হলেও ঘটনাটি সত্যি। চকচকে সোনায় মোড়ানো হোটেলটি তৈরি করা হয়েছে ভিয়েতনামে। শুধু বাইরে নয়, হোটেলের দরজা, জানালা, বাথরুমের টয়লেট সিট থেকে শুরু করে লবি, ইনফিনিটি পুল, রুম এমনকী বাথরুমের শাওয়ারের মাথাটিও সোনায় মোড়া। দেশটির রাজধানীতে তৈরি হওয়া এই হোটেলটি বিশ্বের সর্বপ্রথম সোনায় মোড়া হোটেল।

ভিয়েতনামের রাজধানী হানোইতে গোল্ড প্লেটে তৈরি হওয়া হোটেলটির নাম ‘ডলস হানোই গোল্ডেন লেক’। এই হোটেলের নির্মাণ শুরু হয়েছিল ২০০৯ সালে। আর চলতি বছরের শেষের দিকে পুরোপুরি নির্মিত হয়ে যাবে তাক লাগানো এই স্থাপনাটি।

‘ডলস হানোই গোল্ডেন লেক’ হোটেলটি তৈরিতে খরচ হয়েছে ২০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় এই খরচের পরিমাণ প্রায় ১ হাজার ৭০০ কোটি টাকা। হোটেলের ইন্টিরিয়ার এবং এক্সটিরিয়ার দুই ক্ষেত্রেই ব্যবহৃত হয়েছে ২৪ ক্যারেট সোনা।

তবে সোনার পাতে পুরো হোটেল ছাড়াও হোটেলের টয়লেট সিট থেকে শুরু করে লবি, ইনফিনিটি পুল, রুম এমনকী বাথরুমের শাওয়ারও সোনা দিয়েই তৈরি করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, এই হোটেলে কোনও গেস্ট কফি খেতে চাইলে, তাকে সোনার কাপেই কফি পরিবেশন করা হবে। আবার খাবারও দেয়া হবে সোনার পাত্রে।

 

 

হোটেলটি হানোইয়ের গিয়াং ভো লেকের এক্কেবারে ধারেই তৈরি হয়েছে। সোনার এই হোটেলটি তৈরি করেছে ভিয়েতনামের প্রসিদ্ধ হোয়া বিন গ্রুপ। আর হোটেলটির ম্যানেজমেন্টের দায়িত্বে রয়েছে আমেরিকান সংস্থা উইনধাম হোটেল গ্রুপ।

হোটেলটির ভেতর ও বাইরে ৫০০০ বর্গমিটারের সিরামিক টাইলস বসানো রয়েছে। সম্পূর্ণ সোনা দিয়েই এই টাইলস নির্মিত। সোনার পাতে মোড়া হোটেল ভবনে রয়েছে মোট ২৫টি তলা। হোটেলের যাবতীয় সব আসবাবপত্রও সোনায় তৈরি।

'ডলস হানোই গোল্ডেন লেক' হোটেলে প্রতিদিনের জন্য রুম ভাড়া ২৫০ মার্কিন ডলার থেকে শুরু। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ২২ হাজার টাকা। এই সোনায় মোড়ানো হোটেলে আপনি অ্যাপার্টমেন্টও ভাড়া নিতে পারবেন। তবে সেক্ষেত্রে ৬৫০০ মার্কিন ডলার খরচ করতে হবে আপনাকে। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় পাঁচ লাখ টাকার বেশি।

হোটেল কর্তৃপক্ষের ভাষ্য, হোটেলটি শুধু উচ্চবিত্তদের কথা চিন্তা করে তৈরি করা হয়নি। মধ্যবিত্তরাও হোটেলটিতে ঘুরতে পারবেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় তো অবশ্যই, কর্তৃপক্ষ চাচ্ছেন সশরীরে মানুষ এই হোটেলে চেক ইন করুক।

হোটেলের নির্মাতা সংস্থা হোয়া বিন গ্রুপের চেয়ারম্যান এনগ্যুয়েন হু ডুয়োং বলছেন, আমাদের গ্রুপেরই একটি ফ্যাক্টরি রয়েছে যেখানে আমরা খুব সস্তায় নানা ধরনের সোনার জিনিসপত্র বানাই। সেই দিক থেকে দেখতে গেলে সোনায় মোড়া এই হোটেলে থাকার খরচ অনেকটাই কম।

গাজীপুর কথা
ঐতিহ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর