ব্রেকিং:
করোনা আপডেট বাংলাদেশ ২০/০৯/২০২০: করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২৬ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৯৩৯, নতুন ১৫৪৪ জনসহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৩৪৮৯১৬ জন। নতুন ২১৭৯ জনসহ মোট সুস্থ ২৫৬৫৬৫ জন। একদিনে ১১৫৯১টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ১৮২১২৭০টি।
  • সোমবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৬ ১৪২৭

  • || ০৩ সফর ১৪৪২

সর্বশেষ:
করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সকলেই আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করেছে : প্রধানমন্ত্রী অনলাইনে কেজিপ্রতি পেঁয়াজের দাম ৩৬ টাকা ৪০ উপজেলায় অ্যাপে আমন ধান কিনবে সরকার রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ভূয়সী প্রশংসা এরদোয়ানের মহানগরের হায়দরাবাদ এলাকায় রমনী কুমার বিদ্যালয়ের ৬তলা ভিত স্থাপন গাজীপুরে ২৪ ঘন্টায় নতুন ৩ জন করোনায় আক্রান্ত গাজীপুরে আলাদা দু’টি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২, আহত ২ গাজীপুর সাংবাদিক ইউনিয়নের বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত গাজীপুর-ময়মনসিংহ মহাসড়ক সেজেছে বর্ণিল ফুলে ফুলে এলইডি বাতিতে আলোকিত হচ্ছে ডিএনসিসির সড়ক দেড় হাজার মেট্রিক টন ভারতীয় পেঁয়াজ এসেছে আইনমন্ত্রীর মহানুভবতায় বিক্রি করা সন্তান ফিরে পেলেন মা শিক্ষার্থী ঝরে পড়া রোধে আসছে নানা কর্মসূচি
৪৭

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপনি কতটা নিরাপদ?

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ৪ সেপ্টেম্বর ২০২০  

কোনো সামাজিক যোগাযোগ নেটওয়ার্ক বা সিস্টেমই শতভাগ নিরাপদ নয়। তাছাড়া হ্যাকাররা প্রযুক্তিগত জ্ঞানে বড় বড় ইঞ্জিনিয়ারদের থেকে কয়েকগুণ এগিয়ে রয়েছেন। তারা এসব সিস্টেমে ঢুকে ফাঁক খুঁজে বার করেন তারা এবং নির্দিষ্ট অ্যাকাউন্টে ঢুকে উলট-পালট করে দেন।

মহামারিতে বহু মানুষ অতিরিক্ত ইন্টারনেট নির্ভর। তবে ইন্টারপোলের একটি রিপোর্ট বলছে, সাধারণ মানুষের বদলে বড় বড় সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এবং তাদের শীর্ষকর্তাদের হামলার শিকার হওয়ার আশঙ্কা বেশি।

এসব হ্যাকারদের আসল পরিচয় জানা কঠিন। তবে তাদের ‘হ্যাকটিভিস্ট’ বলা হয়। কারণ এদের অনেকেই নির্দিষ্ট উদ্দেশ্য নিয়ে কাজ করেন। কোনো নির্দিষ্ট মতাদর্শের অনুগামীও রয়েছেন। তাদের উদ্দেশ্য কখনো নিজেদের মতাদর্শকে লোকের সামনে তুলে ধরা। আবার কখনো বিপক্ষকে অপদস্থ করা। তবে নেটবন্দি করে মুক্তিপণ আদায় এবং বিখ্যাত মানুষের প্রোফাইল হ্যাক করে জনতাকে বিভ্রান্ত করে টাকা লুটে নেয়ার লক্ষ্যও থাকে।

আর হ্যাকারেরা এই অর্থ লুটে নেয়ার জন্য বিটকয়েনের মতো ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যবহার করে। এগুলো এক-একটি ইউনিট হিসেবে নির্দিষ্ট দরে কিনতে হয়। ডার্ক ওয়েবে লেনদেনের ক্ষেত্রেও বিটকয়েন ব্যবহার করা হয়। কড়া সুরক্ষাবিধির ফলে এসব লেনদেনের তথ্য খুঁজে পাওয়া কঠিন।

তবে অনেক দেশে মুদ্রা হিসেবে স্বীকৃতি না পেলেও জনপ্রিয়তা পাচ্ছে বিটকয়েন। ফলে অনেক দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক বিটকয়েনের জন্য নীতিমালা প্রণয়নের উদ্যোগ নিয়েছে। তবে বাংলাদেশের মুদ্রা উৎপাদন ও বণ্টনে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নিয়ন্ত্রণ থাকলেও বিটকয়েনে নেই।  

তবে তাই বলে ঘাবড়ে যাবার কিছুই নেই। এসব ক্ষেত্রে সাইবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কিছু বিষয় অবলম্বন করা উচিত। প্রথমত, মোবাইলে বা কম্পিউটারে অজানা কিংবা সন্দেহজনক লিংক বা ফাইল ডাউনলোড করা করবেন না। দ্বিতীয়ত, অ্যাপ ব্যবহারের ক্ষেত্রে তা মোবাইলের কোন কোন ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রণের অনুমতি চাইছে তা দেখতে হবে। বিনা প্রয়োজনে অ্যাপকে মোবাইল নিয়ন্ত্রণের অনুমতি দেবেন না। তৃতীয়ত, অ্যাপ ডাউনলোডের আগে ভাল ভাবে যাচাই করা প্রয়োজন। চতুর্থত, কেউ ব্যাংক বা ওয়ালেট সংস্থার প্রতিনিধি পরিচয় দিয়ে লিংক ডাউনলোড করতে বললেও তা করবেন না। সে ক্ষেত্রে হ্যাকার মোবাইলের নিয়ন্ত্রণ নিতে পারে এবং পাসওয়ার্ডের মতো গোপনীয় তথ্য চুরি করতে পারে। পঞ্চমত, সোশ্যাল নেটওয়ার্কে ব্যক্তিগত তথ্য প্রকাশ করবেন না।

সূত্রঃ আনন্দবাজার পত্রিকা

গাজীপুর কথা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর