ব্রেকিং:
করোনা আপডেট বাংলাদেশ ০৫/জুলাই/২০২০ : করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৫৫ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২০৫২, নতুন ২৭৩৮ জনসহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১৬২৪১৭, মোট সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭২৬২৫ জন, একদিনে ১৩৯৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা।
  • সোমবার   ০৬ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২২ ১৪২৭

  • || ১৫ জ্বিলকদ ১৪৪১

সর্বশেষ:
ডোনাল্ড ট্রাম্পকে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে কাউন্সিল গঠন চামড়াশিল্প রক্ষায় আসছে একগুচ্ছ প্রণোদনা ৭ জুলাইয়ের মধ্যে ঢাবিতে পুরোদমে অনলাইন ক্লাস ত্রাণ পেয়েছে ৭ কোটি ৩৫ লাখ মানুষ চলতি মাসেই জুনের বেতন পাবেন রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকরা গাজীপুরের কালীগঞ্জ পৌরসভার ৩টি ওয়ার্ডের লকডাউন প্রত্যাহার অনলাইনে পশুর হাটের উদ্যোগ গাজীপুর জেলা প্রশাসনের শ্রীপুরে মুজিববর্ষ উপলক্ষে নেতাকর্মীদের মাঝে গাছের চারা বিতরণ
৩৪৪

সপ্তাহের ব্যবধানে মাত্র ১৭ টাকায় প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ৭ জুন ২০২০  

মহামা’রি করো’নার কারণে দেশের সবগুলো স্থলবন্দর দিয়ে ভা’রত থেকে পেঁয়াজসহ

অন্যন্যে পণ্য আম’দানি বন্ধ থাকায় দেশের বাজারে বাড়তে থাকে পেঁয়াজের দাম। আর পেঁয়াজ কিনতে এসে বিপাকে পড়তে হতো সাধারণ ক্রেতাদের।

তবে এখন সাধারণ ক্রেতাদের মাঝে স্বস্তি ফিরে আসার সময় এসেছে। চলতি সপ্তাহে রেলযোগে ভা’রত থেকে পেঁয়াজ আম’দানি শুরু হওয়ায় ইতিমধ্যে হিলিসহ আশপাশের এলাকায় পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, করো’না পরিস্থিতির কারণে লকডাউনের সময় স্থানীয় বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে

৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি দরে। তবে সপ্তাহের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম অনেকটাই সাধারণ ক্রেতাদের হাতের নাগালে আসতে শুরু করেছে।

রেলযোগে ভা’রত থেকে পেঁয়াজ আম’দানি শুরুর পর থেকে হিলিতে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম। দুই দিনের ব্যবধানে কেজিতে ৭ থেকে ৮ টাকা কমে হিলির আড়ৎগুলোতে প্রকারভেদে প্রতিকেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৬ থেকে ১৮ টাকা কেজি দরে।

চলতি সপ্তাহে দু’দিনে ভারতীয় মালবাহী ট্রেনে করে ৮৪টি বগিতে ৩ হাজার ৩০০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে। চাহিদার তুলনায় পেঁয়াজের সরবারহ বৃদ্ধি পাওয়ায় অন্যদিকে ক্রেতা সংকট থাকায় কমেছে আমদানি করা এসব পেঁয়াজের দাম। গত দু’দিনের ব্যবধানে প্রকারভেদে কেজিতে কমেছে ৭ থেকে ৮ টাকা। গত দু’দিন আগেও হিলি স্থলবন্দরের আড়ৎগুলোতে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হতো ২৫ থেকে ২৬ টাকা

দরে। আর সেই পেঁয়াজ বৃহস্পতিবার (৪ জুন) সকালে হিলির পাইকারি বাজারে কেজি প্রতি বিক্রি হচ্ছে ১৬ থেকে ১৮ টাকা।
হিলি স্থলবন্দরের পেঁয়াজ আম’দানিকারক শহিদুল ইস’লাম বলেন, করো’না পরিস্থিতির কারণে স্থলবন্দর দিয়ে আম’দানি কার্যক্রম বন্ধ থাকায় ভা’রত থেকে রেলপথে মালবাহী ট্রেনে করে পেঁয়াজ আম’দানি আম’রা শুরু করেছি।

চলতি সপ্তাহে দুইটি মালবাহী ট্রেনের ৮৪ টি বগিতে ৩ হাজার ৩শ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আম’দানি হয়েছে। আড়ৎগুলোতে পেঁয়াজের সরবরাহ বেড়ে যাওয়ায় দাম কমতে শুরু করেছে। আজ প্রতিকেজি পেঁয়াজ বিক্রি করছি ১৬ থেকে ১৮ টাকা কেজি দরে। আশা করছি আগামী কোরবানী ঈদে পেঁয়াজের দাম বাড়বে না।

পেঁয়াজ কিনতে আসা কয়েকজন পাইকার বলেন, রেলপথে ভা’রত থেকে পেঁয়াজ আসা দাম কমতে শুরু করেছে। গত দুই দিনের থেকে কেজিতে ৮ টাকা দাম কমেছে। পেঁয়াজের দাম কমায় আম’রা বেশি বেশি পেঁয়াজ কিনছি।আর এসব পেঁয়াজ সরবরাহ করা হচ্ছে ঢাকা, বরিশাল, চট্রগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে।

গাজীপুর কথা
কৃষি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর