ব্রেকিং:
করোনা আপডেট বাংলাদেশ ২৪/০১/২০২১: করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২০ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮০২৩, নতুন ৪৭৩ জন সহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫৩১৭৯৯ জন। নতুন ৫১৪ জন সহ মোট সুস্থ ৪৭৬৪১৩ জন। একদিনে ১৪১৬৯টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ৩৫৫৫৫৫৮টি।
  • সোমবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ১২ ১৪২৭

  • || ১১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সর্বশেষ:
২৪ জানুয়ারি, ঐতিহাসিক গণ-অভ্যুত্থান দিবস ইতিহাস সৃষ্টি করলেন প্রধানমন্ত্রী, বাড়ি পেল ৭০হাজার গৃহহীন পরিবার সোমবার ঢাকায় আসছে ৫০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন ২৭ জানুয়ারি করোনার প্রথম টিকা পাবেন কুর্মিটোলার নার্স কাপাসিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার ঘর পেলেন ভূমিহীন ও গৃহহীনরা প্রধানমন্ত্রীর উপহার ঘর পেলেন ভালুকার ১৯৯ গৃহহীন পরিবার গাজীপুরের গাছা’য় বঙ্গবন্ধু কলেজের ভবন উদ্বোধন গণঅভ্যুত্থান দিবস উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট প্রকাশ কালিয়াকৈরে গৃহহীন বিধবাকে গৃহ নির্মাণ করে দিল পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি প্রধানমন্ত্রীর উপহার ঘর পেলেন শ্রীপুরের ২০ পরিবার বাংলাদেশকে করোনার টিকা উপহার দেবে চীনা প্রতিষ্ঠান বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরে ২৫০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে বার্জার পেইন্টস বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা যাবে মোবাইলে: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী কালিয়াকৈরে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন ভালুকায় নৌকা প্রার্থীর পক্ষে ব্যবসায়ী সমিতির মতবিনিময় সভা
২১১

লাল কাপড় দেখিয়ে শতশত ট্রেনযাত্রীর প্রাণ বাঁচালো সাজিদ

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ২৮ ডিসেম্বর ২০২০  

জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার খাসবাগুরী এলাকায় পঞ্চগড় থেকে ঢাকাগামী দ্রুতযান আন্তঃনগর ট্রেনটি থামিয়ে সাজিদ হোসেন নামে এক কিশোর বাঁ’চালো শতশত ট্রেনযাত্রীর প্রাণ। সেই সঙ্গে এক ভ’য়াব’হ দু’র্ঘট’না থেকে রক্ষা পেল কোটি কোটি টাকার মূল্যের ট্রেনটি। রোববার দুপুর ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। জেলার পাঁচবিবি উপজেলার খাসবাগুরী গ্রামের আনোয়ার হোসেন ও সহিদা বেগমের ছেলে সাজিদ হোসেন, পাঁচবিবি উপজেলার একটি বেসরকারি স্কুলে দশম শ্রেণিতে লেখাপড়া করছে।

একই গ্রামের রেজাউল করিম, সজিব, মোজাম্মেল হকসহ এলাবাসীরা জানান, সাজিদের মা সহিদা বেগম বাড়ির পার্শ্ববর্তী রেললাইন পারাপার হচ্ছিলেন। এ সময় তিনি একটি রেললাইনে ফাটল দেখে সঙ্গে সঙ্গে লাঠিতে লাল গে’ঞ্জি লাগিয়ে ছেলে সাজিদকে তা উড়াতে বলেন। পরে সাজিদ লাল গেঞ্জি উড়িয়ে থামিয়ে দেন ঢাকাগামী আন্তঃনগর দ্রুতযান ট্রেনটিকে। এতে বড় দু’র্ঘট’নার হাত থেকে রক্ষা পেল ট্রেনে থাকা শতশত যাত্রী। এই মহৎ কাজে সাজিদকে তাৎক্ষণিক অভিনন্দন জানিয়েছেন এলাকাবাসীরা। সেই সঙ্গে জনগুরুত্বপূর্ণ এই যোগাযোগ ব্যবস্থারও আধুনিকীকরণের দাবি করেন স্থানীয়রা।

সাজিদ হোসেন বলেন, মায়ের নির্দেশে যাত্রীদের প্রাণ ও ট্রেন বাঁচাতেই লাল গেঞ্জি নিয়ে রেল লাইনে দাঁড়িয়েছিলাম, ট্রেন আসা দেখে লাঠিতে লাগানো ওই লাল গেঞ্জি উড়ালে যখন ট্রেন থামল, তখন ভীষণ ভ’য় পেয়েছিলাম। তারপর যখন ট্রেনযাত্রী, ট্রেনচালক ও এলাকার অনেক মানুষ এসে খুব শাবাশ দিল, তখন কি যে ভালো লাগল তা আর বলে বুঝাতে পারব না। সব চেয়ে বড় কথা, দু’র্ঘট’নার হাত থেকে শতশত যাত্রীসহ ট্রেনটিকে র’ক্ষা করতে পারায় নিজেকে ধন্য মনে করছি।

রেললাইন মেরামত কর্মচারী হোসেন বলেন, সাজিদের ট্রেন থামানোর পর অফিস কর্মকর্তাদের নির্দেশে ঘটনাস্থলে এসে রেললাইনের ফা’টল জো’ড়া লাগানো হয়েছে। এতে প্রায় এক ঘণ্টা পর রেল চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জয়পুরহাট রেলস্টেশন মাস্টার হাবিবুর রহমান বলেন, লাল গেঞ্জি উড়িয়ে সাজিদ ট্রেন থামানোর কারণে একটি মা’রাত্ম’ক ট্রেন দু’র্ঘ’ট’নার হাত থেকে এ যাত্রায় র’ক্ষা পাওয়া গেল। রেল বিভাগের পক্ষ থেকে কিশোর সাজিদকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

গাজীপুর কথা
সারাদেশ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর