ব্রেকিং:
করোনা আপডেট বাংলাদেশ ১৩/০৪/২০২১: করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৬৯ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৯ হাজার ৮৯১ জন, নতুন ৬ হাজার ২৮ জন সহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৬ লাখ ৯৭ হাজার ৯৮৫। জন। নতুন ৪ হাজার ৮৫৩ জন সহ মোট সুস্থ ৫ লাখ ৮৫ হাজার ৯৬৬ জন । একদিনে ৩২ হাজার ৯৫৫টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ৫০ লাখ ৭০ হাজার ৭৮৮টি।
  • বুধবার   ১৪ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ১ ১৪২৮

  • || ০৩ রমজান ১৪৪২

সর্বশেষ:
শুরু হলো পবিত্র মাহে রমজান আজ পহেলা বৈশাখ পবিত্র মাহে রমজানের মোবারকবাদ ও পহেলা বৈশাখের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নববর্ষ উপলক্ষে ই-পোস্টার প্রকাশ দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদনে নতুন রেকর্ড কঠোর লকডাউন: সরকারের ১৩ দফার বিধিনিষেধ

যাদুকরি ফসল কালোজিরা চাষ হচ্ছে চাটমোহরে

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ২ এপ্রিল ২০২১  

পাবনার চাটমোহরের কৃষকেরা চলতি রবি ২০২০-২০২১ মৌসুমে ৮০ হেক্টর জমিতে কালোজিরা চাষ করেছেন।

ইতিমধ্যে কালোজিরা পাকতে শুরু করেছে। কতিপয় কৃষক জমি থেকে যাদুর ফসল কালোজিরা উত্তোলনও শুরু করেছেন।

চাটমোহর কৃষি অফিস সূত্র জানায়, ৮০ হেক্টরের মধ্যে ৫ হেক্টর জমিতে বারী-১ এবং ৭৫ হেক্টর জমিতে স্থানীয় জাতের কালোজিরা চাষ হয়েছে।

রবি ২০১৯-২০২০ মৌসুমে ২ হেক্টর জমিতে বারী-১ ও ৮৪ হেক্টর জমিতে স্থানীয় জাতের কালোজিরা চাষ হয়েছিল। হেক্টর প্রতি ফলন হয়েছিল ১.২ মেট্রিকটন। গত বছরের চেয়ে চলতি মৌসুমে ৬ হেক্টর জমিতে কালোজিরার আবাদ কম হয়েছে।

পাবনার চাটমোহরের চড়ুইকোল ব্লকের হরিপুর মোমিন পাড়া গ্রামের কালোজিরা চাষী রওশন আলম জানান, প্রদর্শনীর আওতায় চলতি মৌসুমে ৩৩ শতাংশ জমিতে স্থানীয় উন্নত জাতের কালোজিরা চাষ করেছেন তিনি।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর চাটমোহরে পাবনা এ প্রদর্শনী বাস্তবায়ন করছে।
এবছর তিনি প্রথম কালোজিরা চাষ করেছেন। উপজেলা কৃষি অফিস প্রণোদনার ড্যাপ, পটাশ, ইউরিয়া ও জিপসাম সার দিয়েছিল। তিনি আরো জানান ৩৩ শতাংশ জমি চাষে ২ কেজি বীজ লেগেছে, যার দাম ৮শ টাকা।

জমি চাষে ১ হাজার টাকা, সেচ বাবদ ১ হাজার টাকাসহ তার সর্বমোট ৩ হাজার টাকার মতো খরচ হয়েছে। তিনি আরো জানান, ইতিমধ্যে কালোজিরা পাক ধরতে শুরু করেছে। বিঘাপ্রতি ৩ থেকে সাড়ে ৩ মন ফলন পাওয়া যেতে পারে।

বর্তমানে প্রতিমন কালোজিরা প্রায় ১১ হাজার টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। ভর মৌসুমে প্রায়শই কালোজিরার দাম কম থাকে। এ বছর বাজার দর ভালো থাকলে বিঘা প্রতি প্রায় ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা লাভের আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

চাটমোহর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এ.এ মাসুম বিল্লাহ জানান, কালোজিরা মাঝারি আকৃতির মৌসুমী গাছ। এ গাছে একবার ফুল ও একবার ফল হয়। কালোজিরার বীজ থেকে তেল উৎপন্ন হয়।

বহুবিধ উপকারিতার কারণে কালোজিরাকে ম্যাজিক ফসল বলা হয়। চলতি মৌসুমে চাটমোহরে মাঠ থেকে কালোজিরা উত্তোলনের কাজ শুরু হয়েছে। মসলা হিসেবে ফসলটির ব্যাপক ব্যবহার পরিলক্ষিত হয়।

চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডাঃ রুহুল কুদ্দুস ডলার জানান, শতাধিক পুষ্টি ও উপকারী উপাদান সমৃদ্ধ কালোজিরা বিভিন্ন রোগের প্রতিষেধক। এটি আমাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার পাশাপাশি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

কালোজিরার তেল ও মধু আমাদের শরীরের জন্য উপকারী। আমিষ, শর্করা, ¯স্নেহ, চর্বি, ভিটামিন ও খনিজ পদার্থ সমৃদ্ধ প্রতি গ্রাম কালোজিরায় ২০৮ মাইক্রেগ্রাম প্রেটিন, ১৫ মাইক্রোগ্রাম ভিটামিন বি, ৫৭ মাইক্রোগ্রাম নিয়াসিন, ১.৮৫ মাইক্রোগ্রাম ক্যালসিয়াম, ১০৫ মাইক্রোগ্রাম আয়রন, ৫.২৬ মিলিগ্রাম ফসফরাস, ১৮ মাইক্রোগ্রাম কপার, ৬০ মাইক্রোগ্রাম জিংকসহ অন্য উপাদান রয়েছে।

কালিজিরার ঔষধি গুনের প্রভাবে অনেক ধরণের নারী রোগ ভাল হয়। প্রসবকালীন ব্যাথাসহ শরীর, গলা, দাঁত, পেট ও মাথা ব্যথা, বাতের ব্যথা নিরসনে কালোজিরা অত্যন্ত উপকারী। এছাড়া আরো অনেক রোগ নিরসনে কালোজিরা ভূমিকা রাখে।

তবে পুরোনো কালোজিরার তেল এবং অতিরিক্ত কালোজিরা খেলে তা ক্ষতির কারণ হতে পারে।

গাজীপুর কথা
গাজীপুর কথা