ব্রেকিং:
করোনা আপডেট বাংলাদেশ ২৪/০২/২০২১: করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ০৫ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮৩৭৯, নতুন ৪২৮ জন সহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫৪৪৫৪৪ জন। নতুন ৯১১ জন সহ মোট সুস্থ ৪৯৩৭৯৮ জন। একদিনে ১৬১৫২টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ৩৯৮৭৬৭৬টি।
  • বৃহস্পতিবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১২ ১৪২৭

  • || ১৩ রজব ১৪৪২

সর্বশেষ:
বাংলাদেশেই যুদ্ধবিমান তৈরি করা হবে : প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর ও বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। ৫৭ লাখ কৃষক পেলেন ৩৭২ কোটি টাকার প্রণোদনা টিকা কিনতে ৯৪ কোটি ডলার সহায়তা দেবে এডিবি করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রশংসা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রাত-দিন চলছে কাজ, মেট্রোরেলের লাইন বসেছে ৭ কিলোমিটার বাংলাদেশ থেকে ১২ হাজার কর্মী নেবে সিঙ্গাপুর, রোমানিয়া হল খুলছে ১৭ মে, বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস শুরু ২৪ মে : শিক্ষামন্ত্রী বন্ডের বাজার রমরমা ॥ রেকর্ড পরিমাণ লেনদেন আর্থিক প্রতিষ্ঠানে লুটপাট ঠেকাতে বলেছেন হাইকোর্ট ডুয়েটে ‘রিসার্চ প্রোপোজাল,পাবলিকেশন অ্যান্ড ডকুমেন্টেশন’ কর্মশালা ভালুকায় বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের আঞ্চলিক শাখা কমিটি গঠিত কাপাসিয়ায় ঘর পেল অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ২ পরিবার

‘মিষ্টি মরিচে’ স্বপ্ন দেখছেন ঝিনাইদহের যুবকরা

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ২৯ জানুয়ারি ২০২১  

প্রান্তিক পর্যায়ে কৃষকদের মাঝে এখনো তেমন প্রচলিত না হলেও অনেক সৌখিন চাষি ও বেকার যুবক শুরু করেছেন ‘মিষ্টি মরিচ’ নামে পরিচিত সবজি ক্যাপসিকাম চাষ। ভিটামিন ‘সি’ সমৃদ্ধ এ সবজি সারাবিশ্বে অনেক জনপ্রিয়। এ কারণে ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার নেওয়াজ শরীফের মতো যুবকরা রফতানির লক্ষ্য নিয়ে এই ক্যাপসিকাম চাষ শুরু করেছেন।

দেশে ক্যাপসিকাম চাষ ছড়িয়ে দিতে পারলে বিদেশেও রফতানির প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান উপজেলা কৃষি কর্মকর্তারা।

প্রথমবারের মতো ক্যাপসিকাম চাষ শুরু করেছেন শৈলকুপা পৌর এলাকার পাঠানপাড়ার নেওয়াজ শরীফ। গ্রামের ৪০ শতাংশ জমিতে লাগানো হয়েছে পাঁচ হাজার চারা। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃ-বিজ্ঞানের ছাত্র নেওয়াজ জানান, ৪০ শতাংশ জমিতে সবজি ওঠার আগ পর্যন্ত তার খরচ হচ্ছে ৮০ হাজার টাকা। জমি থেকে পাঁচ টন ফল তোলার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে। যার স্বাভাবিক বাজার মুল্য কমপক্ষে সাড়ে ৩ লাখ টাকা।

তিনি আরো জানান, অক্টোবর থেকে নভেম্বরের মাধ্যে তাইওয়ান জাতের এ সবজি বেলে-দোআঁশ মাটিতে চাষের জন্য উপযোগী। চাষের মাত্র চার মাস পরই ফল তোলা যায়। ফেব্রুয়ারি-মার্চের শুরুতেই সবুজ ক্যাপসিকাম তোলার উপযোগী হবে।

সরেজমিনে শৈলকুপার পাঠানপাড়া গ্রামে দেখা গেছে, মাঠে পরিচ্ছন্ন পরিপাটি ক্যাপসিকাম ক্ষেতের চারিদিকে বেষ্টনী। রয়েছে সেচ ব্যবস্থা ও পাহারাদার। ক্যাপসিকাম চাষে নেওয়াজ শরীফকে পর্যাপ্ত পরামর্শ ও সহযোগিতা দিচ্ছেন উপজেলা কৃষি অফিসের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মসলেহ উদ্দিন তুহিন।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ আকরাম হোসেন জানান, প্রচুর ভিটামিন ‘সি’ সমৃদ্ধ ‘মিষ্টি মরিচ’ খাওয়ার জন্য মানুষকে উদ্বুদ্ধ করা যেতে পারে। এ সবজির চাষ লাভজনক। পাঠানপাড়ার শিক্ষিত যুবক নেওয়াজ শরীফের ক্ষেতটি নিয়মিত দেখভাল করা হয়। তাকে দেখে অনেকেই ক্যাপসিকাম চাষে আগ্রহ দেখাচ্ছে। তাদের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা, পরামর্শ ও প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে।

গাজীপুর কথা