ব্রেকিং:
করোনা আপডেট বাংলাদেশ ১৭/০৪/২০২১: করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১০১ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১০ হাজার ২৮৩ জন, নতুন ৩ হাজার ৪৭৩ জন সহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৭ লাখ ১৫ হাজার ২৫২ জন। নতুন ৫ হাজার ৯০৭ জন সহ মোট সুস্থ ৬ লাখ ৮ হাজার ৮১৫ জন । একদিনে ১৬ হাজার ১৮৫টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ৫১ লাখ ৫০ হাজার ৬৬৩ টি।
  • রোববার   ১৮ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ৫ ১৪২৮

  • || ০৬ রমজান ১৪৪২

সর্বশেষ:
মুজিবনগর দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা কিংবদন্তী অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। প্রধানমন্ত্রীর শোক প্রকাশ। ১৭ এপ্রিল মুজিব নগর দিবস, বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের সুদীর্ঘ ইতিহাসের এক চির ভাস্বর অবিস্মরণীয় দিন দেশ গঠনে নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করুন: রাষ্ট্রপতি মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে ই-পোস্টার প্রকাশ প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পাবে ৩৬ লাখ পরিবার ১৭ এপ্রিল থেকে প্রবাসীদের জন্য বিশেষ ফ্লাইট করোনা রোগীর সহায়তায় বিমান বাহিনীর জরুরি সেবা করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ৫০ লাখ দরিদ্র পরিবারকে ২৫০০ টাকা দেয়ার উদ্যোগ করোনামুক্ত হওয়ার ২৮ দিন পর টিকা নেওয়া যাবে

মাগুরায় বিচি বিহীন কুলের চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

মাগুরায় নতুন ফল বিচি বিহীন কুলের চাষ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। বর্তমানে বাগান থেকে পাকা কুল তোলা চলছে। এই কুলে বিশেষ বৈশিষ্ট খেতে অত্যন্ত সুস্বাদু ও ভীতরে কোন বিচি নেই। ফলে উৎপন্ন কুল বিক্রি করে কৃষকরা আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছেন ।

কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, এ বছর মাগুর সদর উপজলার দ্বারিয়াপুর গ্রামে কৃষক নাসির আহমেদ ৮ হেক্টর জমিতে বিচি বিহীন কুল ও বল সুন্দরী কুলের চাষ করেছেন। ফলন হয়েছে বাম্পার । বাগান মালিক এর ভাই বসির আহমেদ জানান, কুলসহ অন্য ফল বিক্রি করে ১৫ লক্ষ টাকা আয়ের আশা করেছেন। বর্তমানে পাকা কুল তোলা চলছে। জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে বিভিন্ন শেনী পেশার মানুষ এই বাগান দেখতে যাচ্ছেন। ফলে জেলায় বিচি বিহিন কুলের চাষ সম্প্রসারিত হচ্ছে। আটি বিহীন ও বলসুন্দুরী কুল প্রতি কেজি বাগান থেকে পাইকারীভাবে বিক্রি হচ্ছে ৭৫টাকা থেকে ৮০টাকা । খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে আরো বেশী দামে। মাগুরা উৎপন্ন কুল মানিকগঞ্জ , ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায় চালান যাচ্ছে। বাগান মালিকরা জানান , বেকার যুবকরা বাগান করলে তারা স্বাবলম্বী হচ্ছে । এই কুলের বাজারে রয়েছে ব্যাপক চাহিদা। তাদের বাগানে কাজ করে ৮/১০ জনের মৌসুমী কর্মসংস্থান হয়েছে। ফলে জেলায় ফলবাগান সম্প্রসারিত হচ্ছে। কৃষি বিভাগ সুত্রে জানানো হয় ফলবাগান তৈরীতে কৃষকদের প্রয়োজনীয় সহযোগীতা করা হচ্ছে।

সদর উপজেলা কৃষি অফিসার আবু তালহা জানান, মৌসুমী ফল কুল । মাগুরায় ৮ হেক্টর জমিতে বিচি বিহীন ও বলসুন্দরী কুলের চাষ হয়েছে। এর মধ্যে ২ হেক্টরে বিচি বিহীন ও ৬ হেক্টরে বল সুন্দী কুলের চাষ হয়েছে।

গাজীপুর কথা
গাজীপুর কথা