ব্রেকিং:
করোনা আপডেট বাংলাদেশ ১৪/০৪/২০২১: করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৬৯ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৯ হাজার ৯৮৭ জন, নতুন ৫ হাজার ১৮৫ জন সহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৭ লাখ ৩ হাজার ১৭০ । জন। নতুন ৫ হাজার ৩৩৩ জন সহ মোট সুস্থ ৫ লাখ ৯১ হাজার ২৯৯ জন । একদিনে ২৪ হাজার ৮২৫টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ৫০ লাখ ৯৫ হাজার ৬১৩ টি।
  • বুধবার   ১৪ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ১ ১৪২৮

  • || ০৩ রমজান ১৪৪২

সর্বশেষ:
শুরু হলো পবিত্র মাহে রমজান আজ পহেলা বৈশাখ পবিত্র মাহে রমজানের মোবারকবাদ ও পহেলা বৈশাখের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নববর্ষ উপলক্ষে ই-পোস্টার প্রকাশ দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদনে নতুন রেকর্ড কঠোর লকডাউন: সরকারের ১৩ দফার বিধিনিষেধ

ভালুকায় তিন প্রতিষ্ঠান ও ছয় ব্যক্তিকে জরিমানা

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ৭ এপ্রিল ২০২১  

লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে ময়মনসিংহের ভালুকা বাজারে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করায় তিন প্রতিষ্ঠান এবং ছয় ব্যক্তিকে ২৩ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) ভালুকা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মাইন উদ্দিনের নেতৃত্বে বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন নাজির দেলোয়ার হোসেন ও ভালুকা মডেল থানার এসআই রুহুল আমিনসহ পুলিশ সদস্যরা। অভিযান চলাকালে সকলকে সরকারি নির্দেশনা মানতে মাইকিং করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, সরকারি নির্দেশনা অমান্য করায় সেবা হাসপাতালকে পাঁচ হাজার, খোদেজা হালিম হাসপাতালকে পাঁচ হাজার, সাব্বির এন্টারপ্রাইজকে পাঁচ হাজার, সেবা হাসপাতালের সাঈদকে তিন হাজার, তোফাজ্জলকে এক হাজার, সুজনকে এক হাজার, শরিফকে এক হাজার, আলমকে এক হাজার ও শহীদকে এক হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মাইন উদ্দিন বলেন, সম্প্রতি করোনা পরিস্থিতি উদ্বেগজনক পর্যায়ে পৌঁছার কারণে বাংলাদেশ সরকার থেকে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে, সাত দিনের লকডাউনে। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য আমরা মাঠে নেমেছি। মাঠে নেমে আমরা এটাই নিশ্চিত করতে চাইছি যে, প্রত্যেকে যেন এই লকডাউন মেনে চলে, আবশ্যিকভাবে মাস্ক পরিধান করে এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখে। এতে করে লকডাউন আর বাড়াতে হবে না। যদি আমরা এই নির্দেশনাগুলো না মেনে চলি তাহলে লকডাউন বাড়াতে হবে। সেক্ষেত্রে আমাদের জন্য এটা ক্ষতিকর হবে। বিশেষ করে ব্যবসায়ী শ্রেণি বা দিনমজুর যারা খেটে-খাওয়া মানুষ তাদের জন্য কষ্টকর হয়ে যাবে। আমরা সেই পরিস্থিতি চাইছি না। এ জন্য আমরা মাঠে নেমেছি যাতে সকলেই এই লকডাউন মেনে চলে।

তিনি আরও বলেন, লকডাউনের সাত দিন নির্দেশনাগুলো মেনে চলতে হবে যাতে লকডাউন আর বাড়াতে না হয়। আমরা যেন আবার পূর্বের স্থিতিশীল অবস্থায় ফিরে আসতে পারি। লকডাউনকে উপেক্ষা করে যারা নানা রকম কার্যক্রম পরিচালনা করছে, মাস্ক পড়ছে না এবং নির্দেশনা অমান্য করছে তাদের আমরা ছোটখাটো জরিমানা করছি।

গাজীপুর কথা
গাজীপুর কথা