ব্রেকিং:
করোনা আপডেট বাংলাদেশ ২৬/০৯/২০২০: করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩৬ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫১২৯, নতুন ১১০৬ জনসহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৩৫৭৮৭৩ জন। নতুন ১৭৫৩ জনসহ মোট সুস্থ ২৬৮৭৭৭ জন। একদিনে ১০৭৬৫ টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ১৮৯৮৭৭৫টি।
  • রোববার   ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ১২ ১৪২৭

  • || ০৯ সফর ১৪৪২

সর্বশেষ:
২৬ সেপ্টেম্বর, বাঙালীর জাতীয় জীবনে একটি কালো অধ্যায়, জারি করা হয় কুখ্যাত ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ মসজিদে বিস্ফোরণে হতাহতদের ৫ লাখ টাকা করে সহায়তা প্রধানমন্ত্রীর রাষ্ট্রপতির সঙ্গে পিএসসির নবনিযুক্ত চেয়ারম্যানের সাক্ষাৎ দেশব্যাপী রাস্তা নির্মাণে মাস্টারপ্ল্যান হচ্ছে ইউরোপে বাড়ছে রপ্তানি সম্ভাবনা গাজীপুরে ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ১১ জন করোনা আক্রান্ত জাতিসংঘে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ স্মরণে ই-পোস্টার প্রকাশিত কালীগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় রোগীর দৃষ্টিশক্তি হারানোর অভিযোগ জনগণকে ভালোবেসে তাদের সেবায় কাজ করতে হবে : চুমকি নাগরী ইউনিয়ন উপনির্বাচনে মনোনয়ন দাখিল করলেন আ’লীগের প্রার্থী গাজীপুরে অবস্থিত ডুয়েটে ভিসির রুটিন দায়িত্বে অধ্যাপক আসাদ দুর্গম চরাঞ্চলে ঘরে ঘরে পৌঁছে যাচ্ছে বিদ্যুৎ
৫৬

বিশ্বের ক্ষিপ্রগতির ১০ ফুটবলার

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ৪ সেপ্টেম্বর ২০২০  

বাংলায় একটি প্রবচন খুবই জনপ্রিয়- ‘হাতে বল, পায়ে বল, মাথায় বল, ফুটবল’। গোলাকার একটি বস্তুর মাধ্যমে অল্প সময়ের ব্যবধানে বিভিন্নভাবে নৈপুণ্য প্রদর্শন করেন ফুটবলাররা। খেলোয়াড়দের হেড, ব্যাকলিফট, ড্রিবলিং, পাসসহ নানারকম কারিকুরি দেখার মাধ্যমে দর্শকরা আনন্দ পেয়ে থাকেন। তবে প্রতিপক্ষের রক্ষণভাগ চিড়ে বল পায়ে আকস্মিকভাবে ক্ষিপ্রগতির দৌড় একটু বেশিই মনোমুগ্ধকর। 

এ পর্যন্ত অনেক ফুটবলারই দৌড়ের গতিতে সবাইকে মুগ্ধ করেছেন। এদের মাঝে সর্বোচ্চ গতিসম্পন্ন ১০ ফুটবলারকে নিয়ে এবারের আয়োজন:

১০. অ্যালেক্সিস সানচেজ 

 

অ্যালেক্সিস সানচেজ

অ্যালেক্সিস সানচেজ

আর্সেনালের চিলিয়ান উইঙ্গার অ্যালেক্সিস সানচেজ তার দুর্দান্ত গতির জন্য বেশ পরিচিত। ফুটবল মাঠে সর্বোচ্চ ৩০.১ কিমি প্রতি ঘণ্টায় দৌড়েছেন তিনি। বারবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলার ইচ্ছা প্রকাশ করলেও ক্লাবের ব্যর্থতায় তার সে ইচ্ছা খুব একটা পূরণ হয়নি। 

৯. ফ্রাঙ্ক রিবেরি

 

ফ্রাঙ্ক রিবেরি

ফ্রাঙ্ক রিবেরি

দীর্ঘদিন বায়ার্ন মিউনিখে খেলা ফ্রাঙ্ক রিবেরি আরেকজন উইঙ্গার যিনি জাতীয় দলে ফ্রান্সের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছেন। জাতীয় দল ও ক্লাব দুই পর্যায়েই গতি দিয়ে প্রতিপক্ষকে অনেকবার কাবু করেছেন তিনি। তার সর্বোচ্চ গতি ছিল ৩০.৭ কিমি প্রতি ঘণ্টা। 

৮. ওয়েইন রুনি

 

ওয়েইন রুনি

ওয়েইন রুনি

প্রায় পুরো ক্যারিয়ারই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের (ইপিএল) অন্যতম সেরা দল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে কাটিয়েছেন ওয়েইন রুনি। অবশ্য শেষ দিকে এভারটনের হয়ে মাঠ মাতিয়েছেন এই ইংলিশ ফরোয়ার্ড। ইপিএল ইতিহাসের অন্যতম দ্রুততম স্ট্রাইকার রুনি। তিনি সর্বোচ্চ ৩১.২ কিমি প্রতি ঘণ্টা বেগে দৌড়েছেন। 

৭. লিওনেল মেসি

 

লিওনেল মেসি

লিওনেল মেসি

আর্জেন্টিনা তো বটেই, বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবলার বলা হয় লিওনেল মেসিকে। লা লিগা ও বার্সেলোনা সবসময়ই দ্রুতগতির ও বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন ফুটবলারদের বিশেষ প্রাধান্য দিয়েছে। লিওনেল মেসি তাদেরই একজন। ক্যারিয়ারে সর্বোচ্চ ৩২.৫ কিমি প্রতি ঘণ্টা বেগে দৌড়েছেন ছয় বারের ব্যালন ডি’অর জয়ের পাশাপাশি অসংখ্য রেকর্ড গড়া এই মহাতারকা। 

৬. ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো

 

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো

কোনো রেকর্ডে মেসি থাকবেন অথচ তার আশেপাশে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো থাকবেন না এ যেন অসম্ভব এক ব্যাপার। সেই ধারা মেনেই বিশ্বের সর্বোচ্চ গতিসম্পন্ন ফুটবলারদের তালিকায় মেসির ঠিক ওপরেই আছেন এই পর্তুগীজ তারকা। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, রিয়াল মাদ্রিদ ও জুভেন্টাসের হয়ে খেলা সিআর সেভেনের ক্যারিয়ার সর্বোচ্চ গতি ৩৩.৬ কিমি প্রতি ঘণ্টা। 

৫. অ্যারণ লেনন

 

অ্যারণ লেনন

অ্যারণ লেনন

ইপিএলের দল এভারটনের আরেকজন গতিসম্পন্ন ফুটবলার ছিলেন অ্যারণ লেনন। প্রায় সবসময়ই দ্রুতগতির ফুটবলার দলে থাকা সত্ত্বেও পয়েন্ট টেবিলে দলটির নিচের দিকে থাকা বেশ আশ্চর্যজনক এক ব্যাপার। মাঠে সর্বোচ্চ ৩৩.৮ কিমি প্রতি ঘণ্টা বেগে দৌড়েছেন লেনন। 

৪. গ্যারেথ বেল

 

গ্যারেথ বেল

গ্যারেথ বেল

রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেয়ার সময় সে সময়ের ট্রান্সফার ফি’র রেকর্ড গড়েছিলেন ওয়েলস স্ট্রাইকার গ্যারেথ বেল। ইনজুরির কারণে গত কয়েকবছর তার সেরাটা দেখা যায়নি। তার সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ৩৪.৭ কিমি প্রতি ঘণ্টা। 

৩. আন্তোনিও ভ্যালেন্সিয়া

 

আন্তোনিও ভ্যালেন্সিয়া

আন্তোনিও ভ্যালেন্সিয়া

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের রক্ষণভাগের খেলোয়াড় আন্তোনিও ভ্যালেন্সিয়াকে বিশ্বের সেরা রাইট ব্যাক হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন বিখ্যাত কোচ জোসে মরিনহো। সাধারনত উইঙ্গার বা স্ট্রাইকারদের বেশি গতিসম্পন্ন দেখা গেলেও এক্ষেত্রে ব্যাতিক্রম ভ্যালেন্সিয়া। এই রাইট ব্যাকের ক্যারিয়ার সেরা গতিবেগ ৩৫.১ কিমি প্রতি ঘণ্টা।

২. থিও ওয়ালকট

 

থিও ওয়ালকট

থিও ওয়ালকট

আর্সেনাল স্ট্রাইকার থিও ওয়ালকট গতির জন্য বিখ্যাত আরেকজন ফুটবলার। গতি দিয়ে প্রতিপক্ষকে মুহূর্তের মাঝেই হারিয়ে দেয়ার অদ্ভুত ক্ষমতা ছিল তার। সর্বোচ্চ ৩৫.৭ কিমি প্রতি ঘণ্টা বেগে দৌড়েছেন এই ফরোয়ার্ড। 

১. আরিয়েন রোবেন

 

আরিয়েন রোবেন

আরিয়েন রোবেন

জার্মান বুন্দেসলিগা মানেই গতিময় ফুটবলের সর্বোচ্চ উদাহরণ। এই লিগের সবচেয়ে বেশি সাফল্য পাওয়া দল বায়ার্ন মিউনিখের মধ্যমণি ছিলেন ডাচ স্ট্রাইকার আরিয়েন রোবেন। হালকা গড়নের লম্বা এই ফুটবলার এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি বেগে দৌড়ানোর রেকর্ড গড়েছেন। বায়ার্ন কিংবদন্তি রোবেন এক ম্যাচে সর্বোচ্চ ৩৭ কিমি প্রতি ঘণ্টা গতিবেগে দৌড়েছেন। 

পৃথিবীর দ্রুততম মানব উসাইন বোল্ট সর্বোচ্চ ৪৪-৪৫ কিমি প্রতি ঘণ্টা গতিতে দৌড়েছেন। ফুটবলাররা তার কাছাকাছি না গেলেও গতির মাধ্যমে অসংখ্যবার দর্শকদের বিমোহিত করেছেন। গতি ও বুদ্ধিমত্তার মিশেল আছে বলেই হয়তো ফুটবল এত সুন্দর, পৃথিবীর সেরা খেলা। 

গাজীপুর কথা
খেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর