ব্রেকিং:
দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় মোট টিকা নিয়েছেন এক লাখ ৮১ হাজার ৯৮৫ জন। এখন পর্যন্ত টিকা নিয়েছেন ২৬ লাখ ৭৩ হাজার ৩৮ জন। করোনা আপডেট বাংলাদেশ ২৫/০২/২০২১: করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ০৫ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮৩৮৪, নতুন ৪১০ জন সহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫৪৪৯৫৪ জন। নতুন ৯৫৭ জন সহ মোট সুস্থ ৪৯৪৭৫৫ জন। একদিনে ১৫৫৬০টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ৪০০৩২২৬টি।
  • শুক্রবার   ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৩ ১৪২৭

  • || ১৪ রজব ১৪৪২

সর্বশেষ:
পিলখানার শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা বাংলাদেশ থেকে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট আমদানি করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে ভুটান। ৫৭ লাখ কৃষক পেলেন ৩৭২ কোটি টাকার প্রণোদনা বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভে নতুন রেকর্ড করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রশংসা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রাত-দিন চলছে কাজ, মেট্রোরেলের লাইন বসেছে ৭ কিলোমিটার বাংলাদেশ থেকে ১২ হাজার কর্মী নেবে সিঙ্গাপুর, রোমানিয়া হল খুলছে ১৭ মে, বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস শুরু ২৪ মে : শিক্ষামন্ত্রী বন্ডের বাজার রমরমা ॥ রেকর্ড পরিমাণ লেনদেন আর্থিক প্রতিষ্ঠানে লুটপাট ঠেকাতে বলেছেন হাইকোর্ট ডুয়েটে ‘রিসার্চ প্রোপোজাল,পাবলিকেশন অ্যান্ড ডকুমেন্টেশন’ কর্মশালা ভালুকায় বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের আঞ্চলিক শাখা কমিটি গঠিত কাপাসিয়ায় ঘর পেল অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ২ পরিবার

পটকা মাছ খেয়ে মা-বাবার মৃত্যু, তিন মেয়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ৭ জানুয়ারি ২০২১  

কিশোরগঞ্জের ইটনায় পটকা মাছ খেয়ে স্বামী-স্বীর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি তাদের তিন মেয়ে। বুধবার ওই উপজেলার মৃগা ইউনিয়নের পূর্ব গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মৃতরা হলেন- লনা মালাকার, তার স্ত্রী সঞ্চিতা মালাকার। আশঙ্কাজনক অবস্থায় শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাদের তিন মেয়ে সীমা মালাকার, তমা মালাকার ও প্রিমা মালাকারকে।

স্থানীয়রা জানায়, লনা মালাকার ও তার পরিবারের লোকজন মঙ্গলবার রাতে পটকা মাছ দিয়ে ভাত খায়। এর কিছুক্ষণ পরই সবাই অসুস্থ হয়ে পড়ে। মাঝরাতে বাড়িতেই লনা মালাকারের মৃত্যু হয়। অন্যদের বুধবার ভোরে প্রথমে ইটনা হাসপাতালে পরে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে বুধবার সন্ধ্যায় মারা যান সঞ্চিতা মালাকার।

কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান জানান, লনা-সঞ্চিতা দম্পতির তিন মেয়ের অবস্থা গুরুতর। তাদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

গাজীপুর কথা