ব্রেকিং:
করোনা আপডেট বাংলাদেশ ২৪/০১/২০২১: করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২০ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮০২৩, নতুন ৪৭৩ জন সহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫৩১৭৯৯ জন। নতুন ৫১৪ জন সহ মোট সুস্থ ৪৭৬৪১৩ জন। একদিনে ১৪১৬৯টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ৩৫৫৫৫৫৮টি।
  • সোমবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ১২ ১৪২৭

  • || ১১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সর্বশেষ:
২৪ জানুয়ারি, ঐতিহাসিক গণ-অভ্যুত্থান দিবস ইতিহাস সৃষ্টি করলেন প্রধানমন্ত্রী, বাড়ি পেল ৭০হাজার গৃহহীন পরিবার সোমবার ঢাকায় আসছে ৫০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন ২৭ জানুয়ারি করোনার প্রথম টিকা পাবেন কুর্মিটোলার নার্স কাপাসিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার ঘর পেলেন ভূমিহীন ও গৃহহীনরা প্রধানমন্ত্রীর উপহার ঘর পেলেন ভালুকার ১৯৯ গৃহহীন পরিবার গাজীপুরের গাছা’য় বঙ্গবন্ধু কলেজের ভবন উদ্বোধন গণঅভ্যুত্থান দিবস উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট প্রকাশ কালিয়াকৈরে গৃহহীন বিধবাকে গৃহ নির্মাণ করে দিল পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি প্রধানমন্ত্রীর উপহার ঘর পেলেন শ্রীপুরের ২০ পরিবার বাংলাদেশকে করোনার টিকা উপহার দেবে চীনা প্রতিষ্ঠান বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরে ২৫০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে বার্জার পেইন্টস বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা যাবে মোবাইলে: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী কালিয়াকৈরে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন ভালুকায় নৌকা প্রার্থীর পক্ষে ব্যবসায়ী সমিতির মতবিনিময় সভা
২০৫

পটকা মাছ খেয়ে প্রাণ হারালেন বউ-শাশুড়ি

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ২৪ ডিসেম্বর ২০২০  

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে পটকা মাছ খেয়ে বউ-শাশুড়ির মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে আট বছরের এক শিশু। বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) রাতে উপজেলার শহরতলীর উত্তর ভাড়াউড়া এলাকার জয়নাল আবেদিনের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

মৃতরা হলেন, শহরতলীর উত্তর ভাড়াউড়া এলাকার জয়নাল আবেদিনের স্ত্রী সাহিদা বেগম (৪০) ও পুত্রবধূ  নুরুন নাহার (২৫)। চিকিৎসাধীন আছেন তার ছোট ছেলে নাইম (৮)। 

আজ বৃহস্পতিবার সকালে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

খবর পেয়ে রাতেই সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ভানুলাল রায়, শ্রীমঙ্গল কমলগঞ্জ সার্কেলের এএসপি আশরাফুজ্জামান ও শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুস ছালেক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান ভানুলাল রায় জানান, ‘গতকাল বুধবার দুপুরে তাদের বাড়িতে বিষাক্ত পটকা মাছ রান্না হয়। মাছগুলো তিনজনই খান। জয়নাল মিয়া ও তার বড় ছেলে রুবেল মিয়া মাছটি না খাওয়ায় তাদের কিছু হয়নি।’

জয়নাল মিয়া জানান, ‘বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে তারা দুপুরের খাবার খান। রাত ৮টার দিকে শরীরে জ্বালাপোড়া শুরু হয়। রাত ১০টার দিকে দু’বার বমি হয়, এর পরপরই মারা যান তারা।’

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ মৎস গবেষণা ইনস্টিটিউট জানাচ্ছে, এ মাছে বিষের উপস্থিতি স্থান, ঋতু ও একক ভেদে ভিন্নতা দেখা যায়। বৈশাখ মাসে যে মাছটি বিষাক্ত, কার্তিক মাসে সেটাই বিষহীন হতে পারে। কোনো কোনো মাছের চামড়া আবার কোনোটির মাংস বিষাক্ত হয়ে থাকে। গবেষণায় দেখা গেছে পটকা মাছের চামড়া, যকৃত ও ডিম্বাশয়ে বিষের উপস্থিতি বেশি থাকে।

জাপানসহ বিভিন্ন দেশে এ মাছ খেয়ে অসংখ্য মানুষের মৃত্যু ঘটে থাকে। বাংলাদেশেও অনেক মৃত্যুর ঘটনা রয়েছে। ২০০৮ এ মাছ খেয়ে একটি পরিবারের সবার মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। বাংলাদেশ মৎস গবেষণা ইনস্টিটিউট থেকে মাছটি নিয়ে ব্যাপক গবেষণা চালানো হয়।

বাংলাদেশ মৎস গবেষণা ইনস্টিটিউট জানায়, এ মাছ কোথাও কোথাও ট্যাপা মাছ নামেও পরিচিত। বাংলাদেশের স্বাদু পানির ও লোনা পানির দুই জাতের পটকা মাছ পাওয়া যায়। সিলেট অঞ্চলে মাছটি ফুটকরা মাছ নামে পরিচিত।

গাজীপুর কথা
সারাদেশ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর