ব্রেকিং:
করোনা আপডেট বাংলাদেশ ০৪/আগস্ট/২০২০ : করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৫০ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩২৩৪, নতুন ১৯১৮ জনসহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ২৪৪০২০, নতুন ১৯৫৫ জনসহ মোট সুস্থ ১৩৯৮৬০ জন, একদিনে ৭৭১২ টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ১২০১২৫৬ টি।
  • বুধবার   ০৫ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২১ ১৪২৭

  • || ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

সর্বশেষ:
বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ পুত্র, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক এবং ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শহীদ শেখ কামালের ৭১তম জন্মবার্ষিকী আজ সিনহা রাশেদের মাকে প্রধানমন্ত্রীর ফোন, বিচারের আশ্বাস মানুষ যেন উন্নত জীবন পায় সেটাই সরকারের লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী আমরা সফলতার সঙ্গে করোনা মোকাবিলা করেছি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী গাজীপুরে গত ২৪ ঘন্টায় ৮ জনের করোনা শনাক্ত জুলাইয়ে রপ্তানি আয় ৩৯২ কোটি ডলার অতীতের রেকর্ড ভেঙে এক মাসে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এলো দেশে ৬৫ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শুরু হচ্ছে মিড-ডে মিল কার্যক্রম ঈদের ছুটি শেষে ঢাকায় ফিরছে মানুষ গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ গাজীপুরে কমতে শুরু করেছে বন্যার পানি
২১৭

দেশে পরীক্ষা ছাড়াই স্কুল-কলেজে পাসের ঘোষণা আসতে পারে

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ৬ জুলাই ২০২০  

করেনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ উদ্ভুত পরিস্থিতিতে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এর মধ্যে প্রায় সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একাধিক পরীক্ষার সময় পার হয়ে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে বেশ কিছু কলেজে একাদশ শ্রেণির পরীক্ষা ছাড়াই পাস দেখিয়ে দ্বাদশ শ্রেণিতে উত্তীর্ণ করা হয়েছে।

কিন্তু করোনা পরিস্থিতি কত দিনে স্বাভাবিক হতে পারে তা এখনো নিশ্চিত নয় সংশ্লিষ্টরা। ফলে স্কুল, কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরবর্তী পদক্ষেপ কী হবে তা নিয়েও উদ্বেগে শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও অন্যান্যরা।

জানা গেছে, আগামী মাসের মধ্যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলে পরীক্ষা ছাড়া স্কুল পর্যায়ের ছাত্রছাত্রীদের পরবর্তী ক্লাসে উন্নীত করা হতে পারে। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বর্ষপঞ্জি অনুযায়ী, ১৫ থেকে ২৩ এপ্রিলের মধ্যে প্রথম সাময়িক, ৯ থেকে ২০ আগস্টের মধ্যে দ্বিতীয় সাময়িক এবং ২ থেকে ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে বার্ষিক পরীক্ষা হওয়ার কথা।

কিন্তু করোনাভাইরাসে সৃষ্ট পরিস্থিতির মধ্যে গত ১৭ মার্চ থেকে সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় প্রাথমিকের প্রথম সাময়িক পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হয়নি। এইচএসসি-সমমান পরীক্ষাও স্থগিত হয়ে গেছে।  আর ১৯ থেকে ৩০ নভেম্বরের মধ্যে পঞ্চমের সমাপনী পরীক্ষার সূচি রয়েছে।  

এমন পরিস্থিতিতে সামনে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরবর্তী ক্লাসে উন্নীত করার বিষয়ে কী সিদ্ধান্ত হবে তা এখনো নিশ্চিত নয়। তবে জুলাই মাসের মধ্যে করোনার প্রকোপ না কমলে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সাময়িক পরীক্ষা ছাড়া শিক্ষার্থীদের পাস করানো হতে পারে। মাধ্যমিক পর্যায়েও এমন সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক মো. ফসিউল্লা গণমাধ্যমকে বলেন, শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার চাইতে আমরা তাদের পড়ালেখাকে বেশি গুরুত্ব দেই। পরীক্ষা হচ্ছে কাগজে-কলমে একটি অধ্যায় মাত্র, তার চাইতে জরুরি শিক্ষার্থীর পড়ালেখা অব্যাহত রাখা। চলতি মাসের ওপর ভিত্তি করে সাময়িক পরীক্ষার আয়োজন করা হবে কি না, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

তবে বাংলাদেশে এমন চিন্তা করা হলেও ইতিমধ্যে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের রাজস্থানে এমন সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতিতে এ বছরের জন্য সব কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পরীক্ষা না নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেখানকার সরকার। এসব শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা ছাড়াই পরবর্তী ধাপে উর্ত্তীণ করা হবে।

রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট বলেন, করোনা মহামারীরর কারণে রাজ্য সরকার এ বছরের জন্য সব বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এক টুইট বার্তায় মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সব শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা ছাড়াই পরবর্তী বছরের জন্য উর্ত্তীণ করা হবে। উর্ত্তীণ শিক্ষার্থীদের নম্বরের জন্য মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রণালয় ও ভারত সরকার সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে কয়েকদিনের মধ্যে নির্দেশিকা জারি করবে।
ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে উচ্চপর্যায়ের বৈঠকের পর এ সিদ্ধান্ত এসেছে।
এ সিদ্ধান্তটি রাজ্যের সব বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ ও কারিগরি শিক্ষার জন্য প্রযোজ্য হবে।

গাজীপুর কথা
শিক্ষা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর