ব্রেকিং:
করোনা আপডেট বাংলাদেশ ২৮/১১/২০২০: করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩৬ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬৫৮০, নতুন ১৯০৮ জনসহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৪৬০৬১৯ জন। নতুন ২২০৯ জনসহ মোট সুস্থ ৩৭৫৮৮৫ জন। একদিনে ১৪০১২টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ২৭৪৩৫৯২টি।
  • শনিবার   ২৮ নভেম্বর ২০২০ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৪ ১৪২৭

  • || ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

সর্বশেষ:
সৌদি সহায়তায় ৮ বিভাগে ‘আইকনিক মসজিদ’ নির্মিত হবে: প্রধানমন্ত্রী বরেণ্য অভিনেতা আলী যাকেরের দাফন সম্পন্ন পদ্মা সেতুতে বসলো ৩৯তম স্প্যান, দৃশ্যমান সেতুর ৫ হাজার ৮৫০ মিটার বছরে প্রতি উপজেলা থেকে এক হাজার কর্মী যাবে বিদেশ ২ ডিসেম্বর মহাকাশে যাচ্ছে বাংলাদেশের ধনে বীজ গাজীপুরে জাল নোটসহ ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ
১৩১

তিন শ বছরের পুরোনো কাচারিঘর এখন ভূমি জাদুঘর

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ৩০ আগস্ট ২০২০  

লালমনিরহাটের পাটগ্রামে কোচবিহার মহারাজার আমলের প্রায় তিন শ বছরের পুরোনো একটি ভবনকে (কাচারিঘর) সংস্কার করে ভূমি গবেষণা জাদুঘর গড়ে তোলা হয়েছে।

ঐতিহ্যবাহী এই ঘরটি এলাকায় কাচারিঘর নামেই পরিচিত। এটি এখন এই এলাকার ভূমি ব্যবস্থাপনার ক্রমবিকাশের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের নির্দশন। ভবনটি কিছুদিন আগেও পাটগ্রাম উপজেলার পৌর ভূমি অফিস হিসেবে ব্যবহার করা হতো।

জানাগেছে, কোচবিহার মহারাজার সময় থেকেই এই ভবনটি ভূমির খাজনা আদায়ে ব্যবহৃত হয়েছে।

গত বছরের ১ আগস্ট পাটগ্রাম উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) দীপক কুমার দেব শর্মা ভবনটি সংস্কার করে ভূমি ব্যবস্থাপনার ক্রমবিকাশের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের নির্দশন হিসেবে ভূমি গবেষণা জাদুঘর হিসেবে বাস্তবায়ন করেন।

এখানে উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে থাকা বহু পুরোনো নিদর্শন সংরক্ষণ রয়েছে। এছাড়াও রয়েছে প্রাচীন আমলের জমির পরিমাপ, খাজনা আদায়, জমি বর্গাসহ বিভিন্ন বিষয়ের তথ্য। এতে বিভিন্ন সময়ে রাজাদের ব্যবহৃত জিনিসপত্র সংরক্ষণ রয়েছে।

 

তৎকালীন রাজা মহারাজাদের আমলে ব্যবহৃত অস্ত্র-গান্টার চেইন ( ভূমি পরিমাপ যন্ত্র)

তৎকালীন রাজা মহারাজাদের আমলে ব্যবহৃত অস্ত্র-গান্টার চেইন ( ভূমি পরিমাপ যন্ত্র)

প্রাচীন নির্দশনের মধ্যে রয়েছে তৎকালীন রাজা মহারাজারদের আমলে ব্যবহৃত তিনটি সিন্ধুক, তরবারি, গান্টার চেইন ( ভূমি পরিমাপ যন্ত্র) প্রভৃতি। এই জাদুঘরের মধ্যে প্রদর্শনের জন্য রয়েছে ভূমি সংক্রান্ত ফরম গ্যালারি ও ভূমি ব্যবস্থাপনার ইতিহাস। 

এছাড়াও স্থাপন করা হয়েছে ভূমি বিষয়ক লাইব্রেরি। এর পাশের বাগানে রয়েছে বিভিন্ন প্রকার ফুলের গাছ। দর্শনার্থী ও তৃনমূল পর্যায়ের ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তাদের ভূমি বিষয়ক গ্রন্থ পড়ার জন্য রয়েছে বিশেষ  ব্যবস্থা। 

এখানে ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তাদের ভূমি বিষয়ক বিভিন্ন মতামত গুরত্ব সহকারে বিবেচনা করা হয়। ভূমি বিষয়ক আলোচনার কেন্দ্রস্থল হওয়ায় এই ভবনের নাম দেয়া হয়েছে ভূমি গবেষণা জাদুঘর। প্রতিদিন ভূমি গবেষণা জাদুঘরের এসব উপকরণ দেখতে ভিড় করছে দর্শনার্থীরা।

এ বিষয়ে পাটগ্রাম উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) দীপক কুমার দেব শর্মা বলেন, সেই রাজার আমল থেকে ভবনটি ব্যবহৃত হতো খাজনা আদায়ে। ভবনটি প্রায় তিন শ বছরের পুরোনো। ভূমি ব্যবস্থাপনা এক হাজার বছরের ইতিহাস। এ ইতিহাস ও  ঐতিহ্যকে ধারণ করার জন্য জাদুঘরটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। ইতিহাসের স্বাক্ষী হিসেবে প্রাচীন ভূমি সংক্রান্ত বিভিন্ন উপকরণ সংরক্ষণ করি। এর মাধ্যমে প্রাচীনকালের জমি সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে জানতে পারবে নতুন প্রজন্ম।

গাজীপুর কথা