ব্রেকিং:
দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় মোট টিকা নিয়েছেন এক লাখ ৮১ হাজার ৯৮৫ জন। এখন পর্যন্ত টিকা নিয়েছেন ২৬ লাখ ৭৩ হাজার ৩৮ জন। করোনা আপডেট বাংলাদেশ ২৫/০২/২০২১: করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ০৫ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮৩৮৪, নতুন ৪১০ জন সহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫৪৪৯৫৪ জন। নতুন ৯৫৭ জন সহ মোট সুস্থ ৪৯৪৭৫৫ জন। একদিনে ১৫৫৬০টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ৪০০৩২২৬টি।
  • শুক্রবার   ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৩ ১৪২৭

  • || ১৪ রজব ১৪৪২

সর্বশেষ:
পিলখানার শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা বাংলাদেশ থেকে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট আমদানি করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে ভুটান। ৫৭ লাখ কৃষক পেলেন ৩৭২ কোটি টাকার প্রণোদনা বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভে নতুন রেকর্ড করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রশংসা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রাত-দিন চলছে কাজ, মেট্রোরেলের লাইন বসেছে ৭ কিলোমিটার বাংলাদেশ থেকে ১২ হাজার কর্মী নেবে সিঙ্গাপুর, রোমানিয়া হল খুলছে ১৭ মে, বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস শুরু ২৪ মে : শিক্ষামন্ত্রী বন্ডের বাজার রমরমা ॥ রেকর্ড পরিমাণ লেনদেন আর্থিক প্রতিষ্ঠানে লুটপাট ঠেকাতে বলেছেন হাইকোর্ট ডুয়েটে ‘রিসার্চ প্রোপোজাল,পাবলিকেশন অ্যান্ড ডকুমেন্টেশন’ কর্মশালা ভালুকায় বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের আঞ্চলিক শাখা কমিটি গঠিত কাপাসিয়ায় ঘর পেল অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ২ পরিবার

ডিপজলের বিয়ে, কনে বললেন বয়স ফ্যাক্ট না!

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ২১ জানুয়ারি ২০২১  

‘মানুষ কেন অমানুষ’ ছবিতে বর কনে বেশে ডিপজল এবং মৌ খান

‘মানুষ কেন অমানুষ’ ছবিতে বর কনে বেশে ডিপজল এবং মৌ খান

বরের বেশে ঢাকাই ছবির খল অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল। আর পাশেই বধূ বেশে এ প্রজন্মের সম্ভাবনাময়ী চিত্রনায়িকা মৌ খান। অবাক করা ব্যাপার, তবে কী সত্যিই বিয়ের পিঁড়িতে বসলেন ডিপজল-মৌ!
না, একদমই না। তারা বিয়ের পিঁড়িতে বসলেও এটি সত্যিকারের বিয়ে নয়। মানুষ কেন অমানুষ ছবিতে ডিপজল-মৌয়ের এই বিয়ে দেখবেন দর্শক। বর্তমানে সাভারে ডিপজলের বাড়িতে ছবিটির শুটিং চলছে। ১৮ জানুয়ারি এই বিয়ের দৃশ্যধারণের শুটিং হয়। ডিপজল-মৌয়ের বিয়ের দৃশ্যের কিছু স্থিরচিত্র নায়িকা নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন।

ডিপজল-মৌয়ের বয়সের ব্যবধান বেশ। দর্শক এই বিয়ে কীভাবে নেবেন? বিষয়টি নিয়ে মৌ বলেন- এই ছবির গল্পই হলো হিরো। আমার দৃঢ় বিশ্বাস দর্শক ছবিটি খুব পছন্দ করবেন।

ছবিতে নিজের চরিত্র নিয়ে প্রতিশোধের আগুন খ্যাত নায়িকা বলেন, গল্পে আমি ধনী পরিবারের মেয়ে। তবে খুব সাধারণ জীবনযাপন পছন্দ করি। ফলে বিলাসিতায় গা না ভাসিয়ে গ্রামের একটি স্কুলে চাকরি নেই। শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দেয়ার প্রয়াসে কাজ করতে থাকি। সমাজের জন্য কিছু করার প্রয়াস থাকে।

বিয়ের প্রসঙ্গে মৌ খান আরো বলেন, ছবিটি ত্রিভুজ প্রেমের গল্পের। ঘটনার এক পর্যায়ে ডিপজল ভাইয়ের সঙ্গে আমার ভালোবাসা ও বিয়ে হয়।

কিন্তু…? থামিয়ে দিয়ে মৌ বলেন, দেখুন এই ছবির গল্পটাই ভিন্ন। ডিপজল ভাইয়ের সঙ্গে বয়সের যে ব্যবধান এটা মোটেও দর্শকের খারাপ লাগবে না। আমি নিজেই ইমপ্রেস গল্প শুনে। ভালোবাসা তো বয়স দিয়ে হয় না। বয়স আসলে ফ্যাক্টর না। আমরা প্রতিবেশী দেশসহ বাইরের দেশের অনেক ছবির উদাহরণ দিতে পারি। তবে কোনো এক অজানা কারণে আমাদের দেশে এধরনের গল্পের ছবি হয় না।

তিনি বলেন, ডিপজল ভাইয়ের ছবি মানেই দর্শকের বাড়তি আগ্রহ। ছবিটির প্রযোজক হিসেবেও আছেন তিনি। আর পরিচালনা করছেন মনতাজুর রহমান আকবর সাহেবের মতো গুণী নির্মাতা। আমার বিপরীতে আরো দেখা মিলবে চিত্রনায়ক জয় চৌধুরীর।

গাজীপুর কথা