ব্রেকিং:
করোনা আপডেট বাংলাদেশ ১৭/০৪/২০২১: করোনা আক্রান্ত হয়ে ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১০১ জনের মৃত্যু এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১০ হাজার ২৮৩ জন, নতুন ৩ হাজার ৪৭৩ জন সহ আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৭ লাখ ১৫ হাজার ২৫২ জন। নতুন ৫ হাজার ৯০৭ জন সহ মোট সুস্থ ৬ লাখ ৮ হাজার ৮১৫ জন । একদিনে ১৬ হাজার ১৮৫টি সহ মোট নমুনা পরীক্ষা ৫১ লাখ ৫০ হাজার ৬৬৩ টি।
  • রোববার   ১৮ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ৪ ১৪২৮

  • || ০৬ রমজান ১৪৪২

সর্বশেষ:
মুজিবনগর দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা কিংবদন্তী অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী আর নেই (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। প্রধানমন্ত্রীর শোক প্রকাশ। ১৭ এপ্রিল মুজিব নগর দিবস, বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের সুদীর্ঘ ইতিহাসের এক চির ভাস্বর অবিস্মরণীয় দিন দেশ গঠনে নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করুন: রাষ্ট্রপতি মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে ই-পোস্টার প্রকাশ প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পাবে ৩৬ লাখ পরিবার ১৭ এপ্রিল থেকে প্রবাসীদের জন্য বিশেষ ফ্লাইট করোনা রোগীর সহায়তায় বিমান বাহিনীর জরুরি সেবা করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ৫০ লাখ দরিদ্র পরিবারকে ২৫০০ টাকা দেয়ার উদ্যোগ করোনামুক্ত হওয়ার ২৮ দিন পর টিকা নেওয়া যাবে

এইচ টি ইমামের বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবন

গাজীপুর কথা

প্রকাশিত: ৪ মার্চ ২০২১  

বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবনের অধিকারী এইচ টি ইমাম ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা। মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম মন্ত্রিপরিষদ সচিব এইচ টি ইমাম দেশ পরিচালনায় রাখেন অগ্রণী ভূমিকা। ২০১৪ সাল থেকে বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন তিনি। বৃহস্পতিবার (০৪ মার্চ) রাত ১টার পর রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর এ বর্ষীয়ান জনের মৃত্যুতে রাজনৈতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

এইচ টি ইমাম:

তার পুরো নাম হোসেন তৌফিক ইমাম। দেশ-বিদেশের মানুষ তাকে এইচটি ইমাম নামেই চিনতেন।

১৯৩৯ সালে টাঙ্গাইলে জন্ম নেয়া এ কৃতীজন পাকিস্তান আমল থেকেই রাজনীতিতে সম্পৃক্ত মানুষ ছিলেন। ৮২ বছর বয়সে বার্ধক্যজনিত রোগ আর কিডনির ব্যাধি তাকে নিয়ে গেল অনন্তলোকে।

১৯৫৮ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করা হোসেন তৌফিক ইমাম প্রথম জীবনে ছিলেন রাজশাহী সরকারি কলেজের প্রভাষক। মেধাবী ইমাম থিতু হতে পারেননি শিক্ষকতায়।

১৯৬১ সালে পাকিস্তান সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় সিএসপিদের মধ্যে চতুর্থ স্থান লাভ করে পাকিস্তান সরকারের উচ্চ পদে যোগ দেন।

১৯৬৩-১৯৬৪ মেয়াদে তৎকালীন নওগাঁর মহকুমা প্রশাসক হিসেবে ছিলেন এই গুণীজন। পরবর্তীতে সরকারি চাকরি সত্ত্বেও তিনি মুক্তিযুদ্ধে সম্পৃক্ত হন।

১৯৭১-এর ১৬ ডিসেম্বর দেশ স্বাধীন হওয়ার পর স্বাধীন বাংলার ইতিহাসে প্রথম ক্যাবিনেট সচিবের দায়িত্ব পালন করেন এ নীতিপ্রণেতা।

২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর তাকে মন্ত্রী পদমর্যাদায় জনপ্রশাসন বিষয়ক উপদেষ্টা নিয়োগ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরবর্তীতে ২০১৪ থেকে তিনি বঙ্গবন্ধুকন্যার রাজনৈতিক উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

বাংলাদেশ সরকার পরিচালনায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর এই বিশিষ্টজনের মৃত্যুতে রাজনৈতিক ও সামাজিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। দেশের রাজনৈতিক ইতিহাসে বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবনের অধিকারী এইচ টি ইমাম নক্ষত্র হয়েই থাকবেন অগণিত নেতাকর্মীর প্রাণে।

গাজীপুর কথা
গাজীপুর কথা